বান্দরবানে সাত ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারীর করোনা শনাক্ত

0
284
সোনালী ব্যাংক

সোনালী ব্যাংকের দুটি শাখা লকডাউন

সংবাদাতা, বান্দরবান

বান্দরবান জেলায় সোনালী ব্যাংকের দুটি শাখা লকডাউন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার সোনালী ব্যাংক আলীকদম শাখার ৫ জন ও নাইক্ষ্যংছড়ি শাখার ২জন কর্মকর্তা কর্মচারী করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর রবিবার সকাল থেকে ব্যাংক দুটি লকডাউন করা হয়।

জানা গেছে, শনিবার কক্সবাজার ল্যাবে করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট প্রকাশের পর বান্দরবান জেলায় নতুন ১৮ জন করোনা শনাক্ত হয়। এর মধ্যে সোনালী ব্যাংক আলীকদম শাখার ম্যানেজারসহ ৫ জন কর্মকর্তা কর্মচারী করোনা শনাক্ত হয় এবং সোনালী ব্যাংক নাইক্ষ্যংছড়ি শাখায় ম্যানেজারসহ ২ জন করোনা শনাক্ত হয়। আলীকদম শাখায় আক্রান্তরা হলেন ম্যানেজার গিয়াস উদ্দীন, মো. ইসমাইল, আমিনুল বাবর, আরিফ হোসাইন ও ডঙ থোয়াই এবং নাইক্ষ্যংছড়ি শাখায় ম্যানেজার সাবায়েত হোসেন ও থোয়াই  হ্লা চিং মারমা। বর্তমানে তাদের কে আইসোলেশনে নেয়া হয়েছে।  এদিকে ব্যাংকের কর্মকর্তা কর্মচারী করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর রবিবার থেকে ব্যাংক দুটির কার্যক্রম স্থগিত করে লকডাউন ঘোষণা করে উপজেলা প্রশাসন।

আলীকদম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সায়েদ ইকবাল বলেন সোনালী ব্যাংকের ১১ জন কর্মকর্তা কর্মচারীর করোনা পরীক্ষার মধ্যে ৫ জনের করোনা শনাক্ত হওয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার সুপারিশে ব্যাংকটির কার্যক্রম আগামী এক সপ্তাহ পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে। এদিকে  নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন কচি বলেন, সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজারসহ ২ জন করোনা শনাক্ত হওয়ায় করোনা সংক্রমণ যাতে না বাড়ে ব্যাকের কার্যক্রম স্থগিত করে ব্যাংকটি লকডাউন করা হয়েছে আক্রান্তদের আইসোলেশনে নেয়া হয়েছে এবং বাকীদের নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে।

বান্দরবান জেলায় এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৮১ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৩২ জন। মারা গেছেন ১ জন। করোনা সংক্রমণের হার বৃদ্ধি পাওয়ায় গত ১০ জুন বান্দরবান সদর ও রুমা উপজেলাকে রেড জোন ঘোষণা করে লকডাউন ঘোষণা করে প্রশাসন।