বাঘাইছড়িতে পিসিপি নেতাকে গুলি করে হত্যা

0
147

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাঙামাটি :

রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে জেএসএস (এমএনলারমা) সমর্থিত পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের বাঘাইছড়ির কাচালং কলেজ কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক রতœ চাকমা (২০) কে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।
নিহত রতœ চাকমা একই উপজেলার দক্ষিণ পাবলাখালির হীরারচর এলাকার অন্ধলাল চাকমার পুত্র।
পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (এমএনলারমা)র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এবং বাঘাইছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান সুদর্শন চাকমা বিষয়টি নিশ্চিত করে এ হত্যাকা-ের জন্য সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জনসংহতি সমিতিকে দায়ী করেছেন।
সুদর্শন চাকমা জানিয়েছেন, দুপুর দুইটার দিকে উপজেলা সদরের বাবুপাড়া এলাকায় জনসংহতি সমিতির একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী হঠাৎ এসে রতœ চাকমাকে লক্ষ্য করে গুলি করলে ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়।
পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রতিভাস চাকমা গণমাধ্যমে দেয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন, উপজেলা সদরের বাবুপাড়ায় একটি চায়ের দোকানে বসে বন্ধুদের নিয়ে চা পান করার সময় জনসংহতি সমিতির ক্যাডার বিচক্ষণ চাকমার নেতৃত্বে দুটি মোটর সাইকেলযোগে চারজন সশস্ত্র সন্ত্রাসী এলোপাতাড়ি ব্রাশফায়ার করলে ঘটনাস্থলেই মারা যান রতœ চাকমা।’
তিনি এ ঘটনার জন্য সন্তু লারমাকে দায়ী করে বিবৃতিতে আরো বলেন, ‘সন্তু লারমার ব্যর্থতা ও অযোগ্যতার কারণে আজ পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়ীদের চারটি পার্টিতে বিভক্ত হতে হয়েছে। এ ব্যর্থতাকে আড়াল করতে ও বিরুদ্ধ মতকে দমন করতেই সন্তু লারমা এসব ঘটনা ঘটাচ্ছে বলে দাবি করেন তিনি।
বাঘাইছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ আশরাফউদ্দিন জানিয়েছেন, একজনকে গুলি করে হত্যার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে একটি মৃতদেহ উদ্ধার করেছি। লাশ পোস্ট মর্টেম এর জন্য পাঠানো হবে।’
এ বিষয়ে জানার জন্য যোগাযোগ করে সন্তু লারমা সমর্থিত জনসংহতি সমিতির কারো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
এদিকে এ ঘটনার প্রতিবাদে খাগড়াছড়ি শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে নিহত রতœ চাকমার সংগঠন পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ। সমাবেশে তারা এ হত্যাকা-ের জন্য সন্তু লারমা সমর্থিত জনসংহতি সমিতিকে দায়ী করে হত্যাকা-ের সাথে জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচার দাবি করেছেন।