বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণ বাঙালির মুক্তির সনদ

126

আলোচনা সভা

ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালন উপলক্ষে নগরীতে বিভিন্ন সংগঠন আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণ বাঙালির মুক্তির সনদ।
দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ
দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ বিশ্বে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ ভাষণ হিসাবে ইতিহাসে জায়গা করে নিয়েছে। হাজার বছরের ইতিহাসে বঙ্গবন্ধুই সর্বকালের মহানায়ক। বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ বহুমাত্রিকায় সমৃদ্ধ ছিল। বাংলার মানুষ তাঁর এই ভাষণের অপেক্ষায় ছিল।
গতকাল সকাল ১০টায় চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব বঙ্গবন্ধু হলে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালন উপলক্ষে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জ্বীবিত হয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।
দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক প্রদীপ কুমার দাশের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, সহ-সভাপতি মোহাম্মদ ইদ্রিস, আবুল কালাম চৌধুরী, এস এম আবুল কালাম, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট জহির উদ্দিন, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আবদুল কাদের সুজন, বোরহান উদ্দিন এমরান, শ্রম সম্পাদক খোরশেদ আলম, বিজয় কুমার বড়–য়া, অ্যাডভোকেট কামরুন নাহার, দক্ষিণ জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শামীমা হারুন লুবনা, দক্ষিণ জেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক পার্থ সারথী চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি ও পৌর মেয়র মোহাম্মদ জোবায়ের, দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি এস এম বোরহান উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মো. আবু তাহের প্রমুখ।
উপস্থিত ছিলেন অ্যাডভোকেট মির্জা কছির উদ্দিন, আবু জাফর, আবদুল হান্নান চৌধুরী মঞ্জু, মোস্তাক আহমদ আঙ্গুর, চেয়ারম্যান নাছির আহমদ, মাহবুবুর রহমান শিবলী, ছিদ্দিক আহমদ বি.কম, এ কে আজাদ, জান্নাত আরা মঞ্জু, খালেদা আক্তার চৌধুরী, শাহীন আক্তার সানা, জান্নাতুল ফেরদৌস, জীবন আরা বেগম, দিদারুল আলম, মমতাজ উদ্দিন প্রমুখ।
জেলা সিভিল সার্জন
ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে গতকাল সকালে চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) কার্যালয়ের সামনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করছেন জেলা সিভিল সার্জন ও আন্দরকিল্লা জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. সেখ ফজলে রাব্বি। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ডা. মো. আবদুর রব, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ আসিফ খান, জেলা স্বাস্থ্য তত্ত্বাবধায়ক সুজন বড়–য়াসহ সিভিল সার্জন কার্যালয়ের কর্মচারীবৃন্দ।
চুয়েট
চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এ ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ যথাযথ মর্যাদায় গতকাল উদ্যাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে চুয়েটের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলমের নেতৃত্বে সকাল ৯ টায় একটি র‌্যালি বের করা হয়।
র‌্যালিটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে স্বাধীনতা চত্ত্বর সংলগ্ন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়। এরপর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম।
এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রশাসনিক ভবনের কাউন্সিল কক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। চুয়েটে জাতীয় দিবস উদযাপন কমিটির সভাপতি ও পুরকৌশল অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. রবিউল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন ও ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. রেজাউল করিম, স্থাপত্য ও পরিকল্পনা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. মইনুল ইসলাম, যন্ত্রকৌশল অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. জামাল উদ্দীন আহম্মদ, রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী, অধ্যাপক ড. রনজিৎ কুমার সূত্রধর।
অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিভাগীয় প্রধানগণের পক্ষে পুরকৌশল বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. সুদীপ কুমার পাল, শামসেন নাহার খান হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সামসুল আরেফিন, চুয়েট শিক্ষক সমিতির সহ-সভাপতি শ্যামল আচার্য, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আমিন মোহাম্মদ মুসা, স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. জামাল উদ্দীন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এটিএম শাহজাহান। প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেল, ‘ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ বাঙালির মুক্তির সনদ। এটি বিশ্বের যে কোনো নিপীড়িত মানুষের মুক্তির কথা বলে। ৭ই মার্চের চেতনা তরুণ প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে।’
এদিকে চুয়েট বঙ্গবন্ধু পরিষদের উদ্যোগে সকালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তকবক অর্পন করা হয়।
আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্র
ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি), চট্টগ্রাম কেন্দ্রের উদ্যোগে গতকাল ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত হয়েছে। এই উপলক্ষে সকালে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। এ সময় কেন্দ্রের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রকৌশলী সাদেক মোহাম্মদ চৌধুরী, ভাইস-চেয়ারম্যান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক, ও কেন্দ্রের সম্মানী সম্পাদক প্রকৌশলী এস.এম. শহীদুল আলম ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের গুরুত্ব ও প্রেক্ষাপট তুলে ধরে বক্তব্য করেন। পরে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর মুর‌্যালে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এ সময় কাউন্সিল সদস্য প্রকৌশলী সুভাষ চক্রবর্ত্তী, প্রকৌশলী অসীম সেন ও প্রকৌশলী প্রদীপ বড়–য়াসহ অন্যান্য প্রকৌশলীরা উপস্থিত ছিলেন।
সিভাসু
নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে গতকাল রোববার চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে (সিভাসু) ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদ্যাপিত হয়েছে। সকাল ৯টায় বিশ^বিদ্যালয়ের শহীদ মিনার চত্বরে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়। জাতীয় পতাকা উত্তোলন শেষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ।
এ সময় বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, ছাত্রছাত্রী ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। উপাচার্যের পর শিক্ষক সমিতি, কর্মকর্তা সমিতি, কর্মচারী ইউনিয়ন, আবাসিক হল ও প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরাম-এর পক্ষ হতে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।
এরপর দুপুর ১২টায় সিভাসু অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এছাড়া বিশ^বিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বঙ্গবন্ধু’র ঐতিহাসিক ৭ মার্চ-এর ভাষণ প্রচার করা হয়।
ঐতিহাসিক ৭ মার্চের বিভিন্ন কর্মসূচিতে মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ নূরুল আবছার খান, ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন, পোল্ট্রি রিসার্চ অ্যান্ড ট্রেনিং সেন্টার-এর পরিচালক প্রফেসর ড. পরিতোষ কুমার বিশ^াস, ওয়ান হেল্থ ইনস্টিটিউট-এর পরিচালক প্রফেসর ড. শারমীন চেীধুরী, রেজিস্ট্রার মীর্জা ফারুক ইমাম, পরিচালক (ছাত্রকল্যাণ) প্রফেসর ডা. ওমর ফারুক মিয়াজী,পরিচালক (গবেষণা ও সম্প্রসারণ) প্রফেসর ড. আশরাফ আলী বিশ^াস, পরিচালক (বহিরাঙ্গণ কার্যক্রম) প্রফেসর ড. এ.কে.এম. সাইফুদ্দীন, ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এসিউরেন্স সেলের পরিচালক প্রফেসর ড. কবিরুল ইসলাম খান, প্রক্টর প্রফেসর গৌতম কুমার দেবনাথসহ বিভিন্ন দপ্তরের পরিচালক, বিভাগীয় প্রধান, অফিস প্রধান, শিক্ষক, কর্মকর্তা, ছাত্রছাত্রী ও কর্মচারীবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।
চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ
চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজে নানা আয়োজনে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত হয়। এ উপলক্ষে চমেক ক্যাম্পাসে জাতির পিতার ঐতিহাসিক ভাষণ প্রচার, জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। গতকাল রোববার সকাল ১০টায় নতুন একডেমিক ভবনের সেমিনার কক্ষে অধ্যক্ষ প্রফেসর সাহেনা আক্তারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন চমেক উপাধ্যক্ষ ও ডিন, চিকিৎসা অনুষদ চবি প্রফেসর নাসির উদ্দিন মাহমুদ, শিশু স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান প্রফেসর রাশেদা সামাদ, মেডিসিন বিভাগের প্রধান প্রফেসর সুযত পাল, মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রধান প্রফেসর মো. এহসানুল হক, ইউরোলজি বিভাগের প্রধান ও ডিন, নার্সিং অনুষদ (চমেবি) ডা. মো. মনোয়ার উল হক, অফথালমোলজি বিভাগের প্রধান ডা. এস. এম. মাসুদ পারভেজ, অর্থোপেডিক সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মিজানুর রহমান চৌধুরী প্রমুখ।
বাদ জোহর কলেজের কেন্দ্রীয় মসজিদে জাতির পিতা ও তাঁর পরিবারের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এর আগে সকাল ৮টায় জাগ্রত রেসকোর্সে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর সাহেনা আক্তার এর নেতৃত্বে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। বিজ্ঞপ্তি