ফের নির্বাসিত হতে পারে দক্ষিণ আফ্রিকা!

0
197

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
বড়সড় সংকটে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট। ফের একবার ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত হতে পারে নেলসন ম্যান্ডেলার দেশ। কারণ দুর্নীতির অভিযোগে ভেঙে দেওয়া হয়েছে সে দেশের ক্রিকেট বোর্ড। আর পুরো ক্ষমতা চলে গিয়েছে সরকারের হাতে। যা কিনা আবার আইসিসি’র নিয়মবিরুদ্ধ। ফলে আবারও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নির্বাসনের খাঁড়া নেমে আসতে পারে প্রোটিয়া ক্রিকেটারদের উপর। এমনই আশঙ্কা করা হচ্ছে। খবর : সংবাদপ্রতিদিন’র।
দীর্ঘদিন ধরেই ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা বা সিএসএ-এর কার্যকলাপে অখুশি ছিল সেদেশের সরকার। বারেবারে ক্রিকেট বোর্ডের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠছিল। এই পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট বোর্ড ভেঙে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সেদেশর সরকার। পাশাপাশি বোর্ডের কর্মকর্তাদের সরে দাঁড়াতে বলা হয়। আর ক্রিকেট বোর্ডের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকার খেলাধুলার সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ‘সাউথ আফ্রিকান স্পোর্টস কনফেডারেশন অ্যান্ড অলিম্পিক কমিটি।
এক বিবৃতিতে এসএএসসিওসি’র পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাস থেকেই সিএসএ-তে একাধিক দুর্নীতির অভিযোগ সামনে আসতে থাকে। নিজেদের মধ্যেই বিশ্বাসযোগ্যতার অভাব দেখা যাচ্ছিল। এর ফলে ক্রিকেটের উপর থেকে বিশ্বাস সরে যাচ্ছিল। প্রভাব পড়ছিল খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সেও। আর তাই এই সিদ্ধান্ত।’ জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যে গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ওই কমিটি এক মাসের মধ্যে চূড়ান্ত রিপোর্ট জমা দেবে। এদিকে, দক্ষিণ আফ্রিকা সরকারের এই সিদ্ধান্তে প্রোটিয়াদের উপর আইসিসির (ওঈঈ) নির্বাসনের খাঁড়া ঝুলছে। কারণ কোনও দেশের সরকার ক্রিকেট সংস্থার উপর নিয়ন্ত্রণ রাখবে, এটা একেবারেই না-পাসন্দ আইসিসির। এব্যাপারে স্পষ্ট নিয়মও রয়েছে। এর আগে জিম্বাবোয়ের সরকার সেদেশের ক্রিকেট বোর্ডের উপর নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর তাদের ওপরেও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল। এখন দেখার বিষয় ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার উপরও একই নিষেধাজ্ঞা নেমে আসে কিনা। অবশ্য করোনা আবহে শ্রীলঙ্কা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে দক্ষিণ আফ্রিকার সিরিজ পিছিয়ে গিয়েছে। তাই আপাতত কিছুটা সময় আছে ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকার হাতে।