প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষতা বাড়ানোর তাগিদ

0
50

বিথম কলেজ অব প্রফেশনালস এর ওরিয়েন্টেশন

নগরীর বিথম কলেজ অব প্রফেশনালস মিলনায়তনে কলেজের ৩য় বর্ষপূর্তি ও স্প্রিং সেশনের নবীন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম উপলক্ষে সুধী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিথম ওপেন ডে-তে স্পট এডমিশন নেয়া নবীন শিক্ষার্থীদের হাতে ল্যাপটপ তুলে দেন আমন্ত্রিত অতিথিরা।অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স বিভাগের অধ্যাপক ড. তানভীর এম এইচ আরিফ।
বিশেষ অতিথি ছিলেন অধ্যাপক ইউএসটিসি’র প্রাক্তন উপ-উপাচার্য ডা. এ.এইচ.এম ইসহাক চৌধুরী, বিথম কলেজের গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান মো. কামাল হোসেন, হোটেল ম্যানেজমেন্ট প্রশিক্ষক মো. জামশেদ আলম, সাইদ হাসান, সিআইইউ-এর প্রভাষক, ইউএসটিসি’র সহকারী অধ্যাপক মো. এমরান, বিথম কলেজের প্রভাষক রেফায়া তাসকিন শামা ও ফাতিমাতুন নিসা।
কলেজ অধ্যক্ষ মো. জাকের হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা পর্বে প্রধান অতিথি বলেন, ‘বিথম কলেজ অব প্রফেশনালস প্রযুক্তি এবং তরুণ উদ্যোক্তাদের মেধার সমন্বয় ঘটিয়ে চট্টগ্রামে আন্তর্জাতিক মানের ডিগ্রি প্রদান করছে যা চট্টগ্রাম তথা বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের জন্য বিজনেজ ম্যানেজমেন্ট, ট্যুরিজম এবং হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট এবং ইনফরমেশন টেকনোলজিতে করোনা মহামারিতেও আন্তর্জাতিক ডিগ্রি অর্জনের অপূর্ব সুযোগ সৃষ্টি করেছে। বিথম কলেজ অব প্রফেশনালস পুঁথিগত শিক্ষার পাশাপাশি সরাসরি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। আর প্রশিক্ষিত এই তরুণ প্রজন্মই ভবিষ্যত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার প্রধান হাতিয়ার। প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞান কর্মক্ষেত্রে প্রয়োগ করে শিক্ষার্থীরা বিশ্ব অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।
অধ্যক্ষ বলেন, ‘করোনা অতিমারীর সময়ে যখন বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষা প্রদানে হিমশিম খাচ্ছে, বিথম কলেজ অব প্রফেশনালস তখনও শিক্ষার্থীদের কোনোরকম শিক্ষা বিপর্যয় না ঘটিয়ে প্রযুক্তি এবং উন্নত ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। বর্তমানে এই কলেজে শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্বের অন্যান্য দেশের শিক্ষার্থীরাও অনলাইনের মাধ্যমে ভর্তি হয়ে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।’
প্রভাষক ফাতিমাতুন নিসার সঞ্চালনায় আলোচনা শেষে শিক্ষার্থীদের ল্যাপটপ প্রদান করা হয়।
অনুষ্ঠানে বিথম কলেজ অব প্রফেশনালস-এর শিক্ষক, কর্মকর্তাসহ নগরীর বিশিষ্টজনরা উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি