পিতার খুনিদের ফাঁসির দাবিতে রাজপথে দুই শিশুসন্তান

0
180

নিজস্ব প্রতিনিধি, সাতকানিয়া :
‘অনেক দিন বাবাকে দেখি না। বাড়ি ফেরার সময় আমাদের চাহিদা অনুযায়ী খাবারও নিয়ে আসেন না আর। রাতে ঘুম থেকে জাগিয়ে কেউ আদর করে না। বাবাকে তো কোনোদিন কারও ক্ষতি করতে দেখিনি। তবুও কেন বাবাকে হত্যা করা হলো? তাই বাবা হত্যার বিচার চাইতে রাস্তায় নেমেছি। বাবাকে যারা হত্যা করেছে, তাদের ফাঁসি চাই’।
কথাগুলো সাতকানিয়ায় মোটরসাইকেল চোরচক্রের হাতে নিহত গাড়ি ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলাম ওরফে মিয়ার ১১ বছর বয়সী ছেলে হাফেজ মো. তারেকের। গতকাল সকালে সাতকানিয়ার কেরানিহাটে বান্দরবান ও কেরানিহাট ট্রাক, মিনিট্রাক ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা মালিক ও শ্রমিক সমিতির উদ্যোগে আয়োজিত মানববন্ধন ও সমাবেশে ‘আমার পিতার হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড চাই’ প্ল্যাকার্ড বহন করে মহাসড়কে এসেছিলেন শফিকুল ইসলামের পুত্র তারেক ও ৯ বছর বয়সী দ্বিতীয় শ্রেণিপড়ুয়া কন্যা তাজপিয়া ইসলাম তারিন।
মানববন্ধন চলাকালে সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বান্দরবান জেলা শ্রমিকলীগ ও ট্রাকশ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. মুছা কোম্পানি। শ্রমিকনেতা মো. নুরুর সঞ্চালনে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চেয়ারম্যান মনির আহমদ, কেঁওচিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মাস্টার মোহাম্মদ ইউনুছ, সাবেক চেয়ারম্যান লাইনম্যান সৈয়দ, কেরানিহাট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মো. ফেরদৌস আলম, সাবেক ছাত্রনেতা আবু ছালেহ শান, যুবনেতা সোলাইমান বাবুল, শ্রমিকনেতা আবদুল জব্বার, জানে আলম ও মোহাম্মদ আলী প্রমুখ।