পটিয়ায় সিভিল সার্জনসহ ১৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা

0
254

নিজস্ব প্রতিনিধি, পটিয়া :

পটিয়া উপজেলার কাশিয়াইশ ইউনিয়নের হযরত শাহ জাফর আউলিয়া (রহ.) কমিউনিটি ক্লিনিকের কমিটি নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণে সিভিল সার্জনসহ ১৮ জনের বিরুদ্ধে আদালতে একটি মামলা দায়ের হয়েছে।
ক্লিনিকের সভাপতি নুরুল হোসেন খাঁনসহ ৮ জন রোববার পটিয়া যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ আদালতে এ মামলাটি করেন। গত ১২ আগস্ট নুরুল হোসেন খাঁনকে সভাপতি করে কমিটি গঠন করা হয়। এর ১৩ দিন পর ২৬ আগস্ট প্রভাবশালী মহলের ইন্ধনে জসিমুল আনোয়ার খাঁনকে সভাপতি করে আরেকটি কমিটি ঘোষণা করা হয়। ওই কমিটি ভুয়া, যোগসাজশী ও অকার্যকর ঘোষণার রায় ডিগ্রি চেয়ে প্রথম কমিটির সভাপতি পটিয়া আদালতে মামলাটি করেন। এতে বিবাদি করা হয়, ক্লিনিকের নতুন কমিটির সভাপতি জসিমুল আনোয়ার খান, সহসভাপতি মীর জাকের আহমদ, ইউপি সদস্য নাজিম উদ্দিন, মহিলা মেম্বার রত্মা চৌধুরী, সদস্য জামাল উদ্দিন খান, এসএম রহিম, সুজিতা সিকদার, বিধান কুমার দেব, ক্ষিতীশ রঞ্জন বড়–য়া, আবদুর রউফ, মুন্নি নন্দী, মিতা দে, কোঅপ্ট সদস্য ছলিম উল্লাহ খান, শেখ মোজাম্মেল হক এবং মোকাবিলা বিবাদি পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. জাবেদ, চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বি, চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক, কমিউনিটি ক্লিনিকের সদস্য সচিব ইয়াছমিন আরা বেগম।
জানা গেছে, উপজেলার কাশিয়াইশ ইউনিয়নের পিঙ্গালা এলাকায় হযরত শাহ জাফর আউলিয়া (রহ.) নামে একটি কমিউনিটি ক্লিনিক রয়েছে। দুই বছর আগে কমিটির মেয়াদোত্তীর্ণ হয়। পরবর্তীতে একটি কমিটিও গঠন করা হয়। স্থানীয় চেয়ারম্যান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে কমিটির বিষয়ে অবহিত করা হয়। কমিটির ১৩দিন পর প্রভাবশালী মহলের ইন্ধনে গত ২৬ আগস্ট আরেকটি কমিটি ঘোষণা করা হয়। ১২ আগস্ট গঠিত কমিটি বৈধ ঘোষণা এবং পরের কমিটি অকার্যকর ঘোষণার জন্য আদালতের কাছে প্রার্থনা জানান।
চট্টগ্রাম জেলা জজ আদালতের আইনজীবী পুলিন রঞ্জন দাশ জানিয়েছেন, ঘোষণামূলক প্রতিকার চেয়ে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। যাদেরকে বিবাদি করা হয়েছে তারা পরবর্তী তারিখে আদালতে হাজির হয়ে জবাব দেবেন।