নগরে তরুণীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ

0
306
নারীসহ গ্রেফতার আট
সুপ্রভাত ডেস্ক
চট্টগ্রামে এক তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত অভিযোগে এক নারীসহ আট জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার ভোর থেকে দুপুর পর্যন্ত পটিয়া উপজেলা ও নগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয় বলে নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাক জানান। এরা হলেন- জাহাঙ্গীর আলম (৩৮), ইউসুফ (৩২), দেবু বড়ুয়া ওরফে জোবায়ের হোসেন (৩১), রিন্টু দত্ত ওরফে বিপ্লব (৩০), রিপন (২৭), সুজন (২৪), সাহেদ (২৪) ও মনোয়ারা বেগম (৫৫)। প্রথম ৪ জন অটোরিকশা চালক।
সন্ধ্যায় নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিজয় বসাক বলেন, ওই তরুণী রাঙ্গুনিয়া উপজেলার নিজ বাড়ি থেকে নগরীতে এসেছিলেন বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে। কাপ্তাই রাস্তার মাথা থেকে রিকশা নিয়ে নিজ বাসায় যাওয়ার পথে কয়েকজন অটোরিকশায় করে তার পিছু নেয়। মৌলভী পুকুর পাড় এলাকায় এলে তরুণীকে বহনকারী রিকশার গতিরোধ করে তাকে ধরে একটি গলিতে নিয়ে যায়। সেখানে বেশ কয়েকজন মিলে তাকে ধর্ষণ করে। এ পুলিশ কর্মকর্তা জানান, ওই তরুণীকে অভিযুক্তরা মারধর করে সাথে থাকা দুই হাজার টাকা ও মোবাইল ফোনও ছিনিয়ে নেয়। ওই নারী চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) গিয়ে ভর্তি হয়। সেখান থেকে ভোরে পুলিশকে জানানোর পর পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযান শুরু করে। জাহাঙ্গীরকে পটিয়া উপজেলা থেকে এবং অন্যদের নগরীর বিভিন্ন স্থান থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার মরিয়ম বেগমকে অভিযুক্তদের সহায়তার কারণে গ্রেফতার করা হয় বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা বিজয়। এ ঘটনায় নগরীর চান্দগাঁও থানায় গ্রেফতার আটজনসহ অজ্ঞাতনামা বেশ কয়েকজনকে আসামি করে মামলা করেছেন ওই তরুণী। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিদর্শক (তদন্ত) রাজেশ বড়ুয়া বিডিনিউজকে বলেন, যে গলিতে ওই তরুণীকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল সেখানে থাকেন মনোয়ারা বেগম। তিনি অভিযুক্তদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে ধর্ষণকা-ে পাহারা দিয়েছেন।