ধর্মীয় চর্চা মানুষের মনকে পরিশুদ্ধ করে

0
126

দীপাবলী উৎসবে চবি উপাচার্য
চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার বলেছেন, ধর্মীয় চর্চা মানুষের মনকে পরিশুদ্ধ করে, আলোকিত মানুষ হতে সাহায্য করে, কুসংস্কার হতে দূরে রাখে। সনাতন ধর্ম পরিষদ, চবি’র উদ্যোগে আয়োজিত শ্যামা পূজা ও দীপাবলী উৎসব উপলক্ষে ১৪ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬ টায় চবি উত্তর ক্যাম্পাসস্থ কেন্দ্রীয় মন্দির প্রাঙ্গণে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।
উপাচার্য তাঁর বক্তব্যে বলেন, ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চললে পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্র থেকে হিংসা, বিদ্বেষ, হানাহানি দূরীভূত হয়, মানুষে মানুষে ভেদাভেদ থাকে না। মঙ্গল প্রদীপের আলোয় সকল অন্ধকার দূরীভূত হয়ে সত্য, সুন্দর আর কল্যাণে ধরিত্রী পরিপূর্ণ হউক।
চবি সনাতন ধর্ম পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ড. তাপসী ঘোষ রায়ের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. সজীব কুমার ঘোষ -এর সঞ্চালনায় এতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর মো. এমদাদুল হক, রসায়ন বিভাগের প্রফেসর বেনু কুমার দে, প্রাণরসায়ন ও অণুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. দ্বৈপায়ন সিকদার, পদার্থবিদ্যা বিভাগের প্রফেসর ড. শ্যামল রঞ্জন চক্রবর্তী, জামাল নজরুল ইসলাম গণিত ও ভৌত বিজ্ঞান গবেষণা কেন্দ্রের প্রফেসর ড. অঞ্জন কুমার চৌধুরী, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের প্রফেসর ড. অলক পাল, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. বিশ^জিৎ নাথ, বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. প্রকাশ দাশগুপ্ত, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. সুজিত কুমার দত্ত, বনবিদ্যা ও পরিবেশ বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক ড. শ্যামল কর্মকার, প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) ড. মো. আতিকুর রহমান, সহকারী প্রক্টর রামেন্দু পারিয়াল ও আহসানুল কবির পলাশ, পরিসংখ্যান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনার্দন মহান্ত, বৌদ্ধ ছাত্র সংসদ, চবি’র সভাপতি অরূপ বড়–য়া, সহ কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি