দেশে করোনায় মৃত্যু বাড়ছে

0
135
করোনা টেস্টের জন্য নমুনা নেওয়া হচ্ছে

চট্টগ্রামে ৯৩০ নমুনায় শনাক্ত ৬৪ জন

সুপ্রভাত রিপোর্ট
দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণ করেছেন ৩৮ জন। বিভাগ বিশ্লেষণে দেখা যায়, মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ২৮ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৩ জন, রাজশাহী বিভাগে একজন, খুলনা বিভাগে দুজন, বরিশাল বিভাগে একজন, ময়মনসিংহ বিভাগে ২ জন এবং রংপুর বিভাগে একজন রয়েছেন। সবাই হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেছেন। এ নিয়ে মোট ৬ হাজার ৩৮৮ জনের মৃত্যু হলো। করোনা শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ৬০ জন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত ৪ লাখ ৪৭ হাজার ৩৪১ জন শনাক্ত হলেন।
রোববার স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে প্রকাশিত নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।
গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৩ হাজার ৬৬৫টি, পরীক্ষা করা হয়েছে ১৩ হাজার ৮৭০টি। এখন পর্যন্ত ২৬ লাখ ৪৯ হাজার ৭২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ৬০ জন।
গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ৮৫ শতাংশ এবং এখন পর্যন্ত ১৬ দশমিক ৮৯ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮১ দশমিক ০২ শতাংশ এবং মৃত্যু হার এক দশমিক ৪৩ শতাংশ।
মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ২৮ জন পুরুষ এবং ১০ জন নারী। এখন পর্যন্ত পুরুষ ৪ হাজার ৯০৯ জন এবং নারী মৃত্যুবরণ করেছেন এক হাজার ৪৭৯ জন।
বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ৬০ ঊর্ধ্ব ১৯ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১০ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ৪ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ৪ জন এবং ০ থেকে ১০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন।
এদিকে করোনায় চট্টগ্রামে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৬৪ জন। চট্টগ্রামে গত শনিবার ফৌজদারহাট বিআইটিআইডি, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ, ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল, মা ও শিশু হাসপাতাল, জেনারেল হাসপাতালের আরটিআরএল এবং কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে ৯৩০ নমুনার মধ্যে করোনা পজিটিভ হয়েছে ৬৪ জনের। এতে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২৩ হাজার ৬২৮ জন।
সিভিল সার্জন থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুসারে জানা যায়, চট্টগ্রামের ফৌজদারহাট বিআইটিআইডিতে ৪৩৯ নমুনার মধ্যে ১ জন করোনা পজিটিভ হয়েছে। চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে ৩৭১ নমুনার মধ্যে ৫০ জনের, আরটিআরএল ল্যাবে ৫ জনের নমুনায় ৩ জন, মা ও শিশু হাসপাতালে ২০ জনের নমুনায় ১০ জনের পজিটিভ পাওয়া গেছে এবং কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে ৯৫ জনের নমুনায় কারো পজিটিভ পাওয়া যায়নি।
উল্লেখ্য, চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত শুরু হয়েছিল গত ৩ এপ্রিল। দামপাড়ায় এক বৃদ্ধের আক্রান্তের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছিল চট্টগ্রামে করোনা। ঈদের পর থেকে ধীরে ধীরে করোনার প্রভাব কমতে থাকলেও গত মাস থেকে আবারো ধীরলয়ে বাড়ছে করোনা শনাক্ত। গত কিছুদিন ধরে প্রতিদিন ১০০ এর বেশি হচ্ছে আক্রান্তের সংখ্যা।