দেশদ্রোহিতার মামলা কঙ্গনার বিরুদ্ধে

0
243

সুপ্রভাত ডেস্ক :
এযাবৎকাল সলমন, আমির, শাহরুখের মতো একাধিক বলিউড তারকাকে ‘দেশদ্রোহী’ বলে কটাক্ষ করে এসেছেন। আর শেষে কিনা সেই একই আখ্যা জুটল তার নিজের কপালেই! ভারতীয় সংবিধানকে ‘জাতিবাদী’ বলে কটাক্ষের জের, কঙ্গনা রানাউতের বিরুদ্ধে দায়ের হল দেশদ্রোহিতার মামলা। অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ দায়ের করেছেন খোদ ভীমসেনা প্রধান সৎপাল তনওয়ার।
ভীমসেনার প্রধান সৎপাল তনওয়ারের অভিযোগ, ভারতীয় সংবিধানকে জাতিবাদী বলে মানুষকে উসকানি দিচ্ছেন কঙ্গনা। জাতি-শ্রেণি বৈষম্য নিয়ে কঙ্গনার করা টুইট আপাতত সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ডিং। ভারতীয় সংবিধানকে অপমান করেছেন তিনি। যা দেশদ্রোহিতার সমান! বলে মত তার। আর সেকারণেই কঙ্গনার বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সৎপাল। অতঃপর সেই টুইটের প্রেক্ষিতেই অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে গুরুগ্রামের ৩৭ সেক্টর থানায় সাইবার বিভাগে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে জানান সৎপাল তনওয়ার।
ঘটনার সূত্রপাত একটি টুইটকে কেন্দ্র করে। আসলে মার্কিন মুলুকের একশোজন কর্তাব্যক্তিকে জাতিপ্রথা নিয়ে একটি বই উপহার দিয়েছেন অপরা উইনফ্রে। আর রবিবার সেই খবর টুইট করেই কঙ্গনা লিখেছিলেন, ‘আধুনিক ভারতীয়রা জাতিপ্রথাকে অস্বীকার করেন। ছোট শহরের বাসিন্দারাও জানেন যে বর্তমানে এটি আর আইনত গ্রহণযোগ্য নয়। আর কিছু কিছু মানুষের কাছে এই জাতিপ্রথা আসলে অন্যকে দুঃখ দিয়ে আনন্দ পাওয়ার একটা ইন্ধন ছাড়া আর কিছুই নয়। উল্লেখ্য, আমাদের সংবিধানেই শুধু সংরক্ষণের কথা আছে। চলুন এটা নিয়ে কথা বলা যাক।’ ব্যস, এই টুইটের পরই কঙ্গনার অনুরাগীদের আস্ফালন শুরু হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। আর ভারতীয় সংবিধানে জাতি সংরক্ষণের কথা বলেই বিপাকে পড়েন কঙ্গনা রানাউত। যার জেরে অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে গুরগ্রামে মামলা দায়ের করা হয়েছে ভিমসেনার তরফে। কঙ্গনার এই টুইটের প্রেক্ষিতে যেমন নেটজনতার একাংশ তার সমর্থনে মুখ খুলেছেন। কেউ বা অভিনেত্রীকে তুলোধোনা করতেও ছাড়েননি। সবমিলিয়ে ফের টুইটারে ট্রেন্ডিং কঙ্গনা রানাউত। খবর : সংবাদপ্রতিদিন’র।