দীপিকা-সারা-রকুলের ফোন ফোন বাজেয়াপ্ত

0
197

সুপ্রভাত ডেস্ক :
বলিউডের ড্রাগ যোগ নিয়ে চলছে তদন্ত। তলব করা হয়েছিল দীপিকা পাড়ুকোন, সারা আলি খানের মত অভিনেত্রীদের। জানা যাচ্ছে, ফোন বাজেয়াপ্ত করে নিয়েছে নারকোটিকস ব্যুরো। সূত্রের খবর, তিন অভিনেত্রীর ফোন বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। সেগুলি ফরেনসিকে পাঠানো হবে পরীক্ষার জন্য।
এদিন জেরায় ড্রাগ চ্যাটের কথা স্বীকার করলেও তিনি ড্রাগ নেননি বলে দাবি করেছেন দীপিকা। আবারও তাকে ডাকা হতে পারে। এরই মধ্যে গ্রেফতার করা হল ধর্ম প্রোডাকশনের প্রাক্তন কর্মী ক্ষিতিজ প্রসাদকে। ড্রাগ নেওয়ার কথা অস্বীকার করেছেন শ্রদ্ধা। তবে সুশান্তকে সেটে ড্রাগ নিতে দেখেছেন।
কেদারনাথ ছবির ক্যুটিং এর সময় সুশান্তের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠতার কথা স্বীকার করেন সারা। পার্টিতেও গিয়েছেন একসঙ্গে। তবে তিনি নিজে ড্রাগ নেননি বলেই জানিয়েছেন।
ড্রাগ কেলেঙ্কারির তদন্তে নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো ক্ষিতিজ প্রসাদ নামে এক ব্যক্তিকে তলব করে। জানা যায়, তিনি করণ জোহরের ধর্ম প্রোডাকশনের কর্মি। কিন্তু, শুক্রবার রাতে এই বিষয়ে একটি বিবৃতি দেন করণ। তিনি সাফ জাননা, ক্ষিতিজ তার ঘনিষ্ঠ কেউ নয়। শনিবারই ক্ষিতিজকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
তিনি জানান, ক্ষিতিজ প্রসাদ ও অনুভব চোপড়া নামে যে দু’জনকে ডাকা হয়েছে, তাদের তিনি ব্যক্তিগতভাবে চেনেন না। প্রযোজক জানান অনুভব চোপড়া তার সঙ্গে দুটি প্রজেক্ট কাজ করলেও তিনি ধর্ম প্রোডাকশনের কর্মী নন। প্রযোজনা সংস্থার ভাবমূর্তি রক্ষা করপতে করণ বলেন, এরা ব্যক্তিগত জীবেন কী কাজ করেছে, তার দায় ধর্ম প্রোডাকশনের নয়।
কিছুদিন আগে করণ জোহরের বাড়িতে হওয়া একটি পার্টির ভিডিও ভাইরাল হয় ইন্টারনেটে। সেখানে দীপিকা, মালাইকা, শাহিদ কাপুর, ভিকি কৌশন, রণবীর কাপুরদের মত তারকাদের দেখা যায়। সম্প্রতি ড্রাগ কেলেঙ্কারি সামনে আসতে শুরু করায় ফের ভাইরাল হয় সেই ভিডিও। করণ বিবৃতিতে দিয়ে জানান, ওই পার্টিতে কেউ ড্রাগ নেয়নি।
এদিকে মাদক যোগে নাম জড়ানোয় ক্রবার অভিনেত্রী রকুল প্রীতকে জিজ্ঞাসাবাদ করল নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো। তার বিরুদ্ধেও উঠেছিল মাদক নেওয়ার অভিযোগ। জিজ্ঞাসাবাদে রকুল প্রীত সিং স্বীকার করেছেন যে রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে তিনি মাদকের বিষয় কথা বলেছেন। খবর : কলকাতাটোয়েন্টিফোর’র।