দীঘিনালায় গ্রামবাসীর উদ্যোগে স্বেচ্ছায় সেতু নির্মাণ

0
168

নিজস্ব প্রতিনিধি, দীঘিনালা :
এখানে সেতু না থাকায় মাইনী নদীর পানি মাড়িয়ে অথবা সাঁতরে ওপারে যেতে হতো। তাই গ্রামবাসী মিলে সেতুটি নির্মাণ করেছে। এখন আর নদীর পানিতে ভিজতে হয় না। কথাগুলি জানালেন দীঘিনালা উপজেলার বাবুছড়া ইউনিয়নের চৌধুরী পাড়া গ্রামের কলিন চাকমা।
গত সোমবার দীঘিনালা উপজেলার বাবুছড়া-চৌধুরী পাড়া এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, মাইনী নদীর ওপর নির্মিত কাঠের সেতু দিয়ে এলাকার লোকজন পারাপার করছে।
এ সময় খোজ নিয়ে জানা যায়, নদীর ওপারে নুনছড়ি, চৌধুরী পাড়া, বদনকুমার কারবারি পাড়া, বিদ্যাচন্দ্র কারবারি পাড়া, তরিৎ কান্তি কারবারি পাড়া, সুরসেন মেম্বার পাড়া, ইন্দ্রমনি কারবারি পাড়া এবং ডিপি পাড়ায় গ্রামের সাড়ে চার হাজার লোকের বসবাস। মাইনী নদীর বাবুছড়া-চৌধুরী পাড়া এলাকায় সেতু না থাকায় বর্ষা মৌসুমে নৌকায় পারাপার করতে হয়। বিশেষ করে শুষ্ক মৌসুমে পানি কমে গিয়ে নৌকা চলাচল বন্ধ হয়ে গেলে দুপারের লোকজনের যাতায়াত বন্ধ হয়ে যায়। তাই দুপারের চলাচল অব্যাহত রাখার জন্যে নিজেদের উদ্যোগে এ সেতু নির্মাণ করে গ্রামবাসী।
এ ব্যাপারে ডিপি পাড়া গ্রামের বাসিন্দা বৈশাখী চাকমা জানান, গ্রামের কেউ কাঠ দিয়ে সহযোগিতা দিয়েছেন, আবার কেউ দিয়েছেন খুঁটি। অনেকে কায়িক শ্রম দিয়েছেন। যার ফলে সর্বমোট ৩৫ হাজার টাকায় নির্মাণ করা হয় এ সেতু। সহজেই পারাপার করতে পেরে এখন খুব আনন্দ লাগে।
বাবুছড়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য গগন বিকাশ চাকমা জানান, গত মঙ্গল, বুধ এবং বৃহস্পতিবার তিন দিন এলাকাবাসীর একটানা পরিশ্রমের ফলে সেতুটি নির্মাণ করা গেছে। এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই চমৎকার কাজ করেছেন। এখন গ্রামের সকলেই সহজে নদী পারাপার করতে পারছে। আমি তাদের এ উদ্যোগেকে সম্মান ও স্বাগত জানাই।