তিনজন করোনা আক্রান্তের মৃত্যু

0
324
3D illustration of Coronavirus, virus which causes SARS and MERS, Middle East Respiratory Syndrome

নিজস্ব প্রতিবেদক :
করোনা আক্রান্ত হয়ে মুমুর্ষ অবস্থায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আশরাফ আলী (৭৬), বিআইটিআইডি হাসপাতালে জয়নাল আবেদীন (৭২) ও পটিয়া থেকে আসার পথে পঞ্চানন বিশ্বাস (৫৫) মৃত্যুবরণ করেন। চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল ও বিআইটিআইডি হাসপাতাল থেকে এই তথ্য জানা যায়।
চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন বিভাগের সমন্বয়ক ডা. আব্দুর রব বলেন, ‘চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজন পজিটিভ কেসের রোগী মারা গেছেন। তার নাম আশরাফ আলী (৭৬)। তিনি আজ (বুধবার) সকাল ৮ টার দিকে ইন্টেন্সিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউ)-তে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। আশরাফ আলী নগরীর পাচঁলাইশ থানার কাতালগঞ্জ এলাকার বাসিন্দা।’
মৃত ব্যক্তিকে কখন হাসপাতালে ভর্তি করা হয় জানতে চাইলে তিনি সুপ্রভাতকে বলেন, ‘তাকে গত শনিবার রাত ১২ টার পর চট্টগ্রাম জেনারেলর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। ভর্তির পর থেকে তিনি আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তার ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপসহ অন্য রোগে ছিলো। এ নিয়ে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।’
তিনি আরো বলেন, ‘আজ (বুধবার) বিকেলে পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে আরেকজন পজিটিভ কেসের রোগী জেনারেল হাসপাতালে আসার পথে মারা গেছেন। উনার নাম পঞ্চানন বিশ্বাস (৫৫)। তিনি পটিয়ার বাসিন্দা। উনার শারীরিক অবস্থা খারাপ হওয়ার প্রেক্ষিতে উনাকে জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউ ইউনিটে ভর্তি করানোর জন্য প্রেরণ করা হয়। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত তিনি পথিমধ্যে মৃত্যুবরণ করেন।’
অন্যদিকে বিআইটিআইডি হাসপাতালে কোভিড-১৯ পজেটিভ একজন রোগী মৃত্যুবরণ করেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে হাসপাতালটির কনসালটেন্ট ফারজিন আক্তার সুপ্রভাতকে বলেন, ‘আজ সকালে জয়নাল আবেদীন (৭২) নামের এক রোগী মৃত্যুবরণ করেছেন। তিনি গতকাল দুপুর তিনটায় বিআইটিআইডি হাসপাতলে ভর্তি হয়েছিলেন। ওনার শারীরিক অবস্থা বেশি খারাপ থাকার কারণে আমরা ওনার নমুনা সংগ্রহ করে জরুরি ভিত্তিতে ল্যাবে পাঠাই। আজ ইফতারের আগে উনার নমুনার ফলাফলে পজিটিভ আসে। আমরা ওনাকে অক্সিজেন সাপোর্ট দিয়ে রেখেছিলাম। কিন্তু উনি আইসিইউ পেশেন্ট ছিলেন। আমাদের হাসপাতালে আইসিইউ না থাকায় আমাদের পক্ষে তা দেয়া সম্ভব হয়নি।’
গতকাল মঙ্গলবার পরীক্ষা হওয়া ২৪৮ জনসহ বিআইটিআইডি এ নিয়ে ৫ হাজার ৪৮৮ জনের নমুনা এবং সিভাসুর ল্যাবে ১ হাজার ১৬২ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এছাড়া চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের (চমেক) ল্যাবে এখন পর্যন্ত ১৮৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। যারমধ্যে চট্টগ্রামে এখন পর্যন্ত ৪১৯ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত ২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।