ট্রাকচাপায় বনকর্মকর্তা নিহত সাতকানিয়ায়

0
195

নিজস্ব প্রতিনিধি, সাতকানিয়া :

সাতকানিয়ায় ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে এক বনকর্মকর্তা নিহত হয়েছেন। তাঁর নাম মো. মোবারক হোসেন (৪৮)। তিনি কুমিল্লা জেলার বরুরা উপজেলার মহেষপুর এলাকার বাসিন্দা। গতকাল দুপুর আড়াইটার সময় উপজেলার নয়াখাল এলাকার চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহত মো. মোবারক হোসেন ১৯৯৬ সালে বন অধিদপ্তরের গ্রিনবেল্ট প্রজেক্টে ফরেস্টার হিসেবে যোগদান করেন। পরবর্তী সময়ে প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হলে তিনি রাজস্বখাতে স্থানান্তরিত হয়ে পুনরায় সরকারি কাজে যোগদান করেন। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত মোবারক হোসেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ বনবিভাগের আওতাধীন পদুয়া রেঞ্জের ডলুবিটের কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন।
নিহত মোবারক হোসেন ফরেস্টার এক মেয়ে ও এক ছেলের জনক। তার মেয়ে একাদশ শ্রেণির ছাত্রী এবং ছেলে ষষ্ঠশ্রেণিতে পড়ছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় বনবিভাগ সূত্রে জানা যায়, গতকাল মোবারক নিজ অফিস থেকে বাগানসৃজনের প্রস্তাব প্রদানের জন্য মৌজা ম্যাপ সংগ্রহের সরকারি কাজে বের হয়ে মোটরসাইকেলযোগে সাতকানিয়ায় আসেন। দুপুরে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে নয়াখাল এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা দোহাজারী হতে গুমধুম পর্যন্ত রেললাইন স্থাপনের কাজে নিয়োজিত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান তমা গ্রুপের বালুবাহী ট্রাক মোবারকের মোটরসাইকেল চাপা দিলে তিনি ঘটনাস্থলে নিহত হন।
পদুয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম জানান, পদুয়া রেঞ্জের ডলুবিটের কর্মকর্তা মো. মোবারক হোসেন মোটরসাইকেলযোগে সরকারি কাজে মৌলভীর দোকানের দিকে যাচ্ছিলেন। নয়াখাল এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা তমা গ্রুপের বালুবাহী ট্রাক তাকে চাপা দিলে তিনি নিহত হন।
দোহাজারী হাইওয়ে থানার ওসি ইয়াসির আরাফাত বলেন, নয়াখাল এলাকায় ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী এক বনকর্মকর্তা নিহত হয়েছেন।
খবর পেয়ে ঘটনাস্থল গিয়ে লাশ উদ্ধার করি এবং ঘাতক ট্রাকটি পুলিশ হেফাজতে নিয়ে আসি। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।