জম্বু-কাশ্মীরের কোচ হতে চান রায়না

0
191

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
গত ১৫ আগস্ট মহেন্দ্র সিং ধোনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর পরই অবসর ঘোষণা করেছিলেন সুরেশ রায়না। প্রিয় ক্যাপ্টেনের পথে হেঁটেই জানিয়ে দিয়েছিলেন দেশের জার্সি তুলে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন। এবার জানা গেল, জীবনের দ্বিতীয় ইনিংসে তিনি কী করতে ইচ্ছুক, সেই পরিকল্পনাও করে ফেলেছেন।
আপাতত আসন্ন আইপিএলের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাতে রয়েছেন রায়না। কোয়ারেন্টাইন পিরিয়ড কাটলেই নেমে পড়বেন প্র্যাকটিস। তবে এরই মধ্যে জানা গেল, ভারতীয় ক্রিকেটের উন্নতির জন্য কাজ করতে আগ্রহী তিনি। দেশের অন্যান্য প্রান্তের তুলনায় ক্রিকেটে অনেকটা পিছিয়ে জম্মু ও কাশ্মীর। গুলির শব্দেই সেখানে সাধারণের ঘুম ভাঙে। তাই সেই পরিবেশ থেকে ক্রিকেটার হয়ে ওঠার চ্যালেঞ্জটা অত্যন্ত কঠিন। আর ঠিক এই ক্ষেত্রেই সাহায্য করতে ইচ্ছুক বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান। জম্মু ও কাশ্মীরের উএচ দিলবাগ সিংকে ইতিমধ্যেই লিখিতভাবে নিজের ইচ্ছের কথা জানিয়েছেন। পিছিয়ে পড়া বাচ্চাদের ক্রিকেট খেলায় উদ্বুদ্ধ করতে চাওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন রায়না।
নিজের ক্রিকেট কেরিয়ারের ১৫ বছরের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে ভূস্বর্গে তরুণদের ব্যাট-বল হাতে তুলে নিতে উৎসাহ দিতে চান তিনি। চিঠিতে তিনি বলেছেন, জম্মু ও কাশ্মীরের প্রত্যন্ত গ্রাম, স্কুল, কলেজ থেকে প্রথমে প্রতিভা বাছাই করে তাদের একসঙ্গে প্রশিক্ষণ দেবেন তিনি। যাতে তারাই ভবিষ্যতে ভারতীয় ক্রিকেটের মুখ উজ্জ্বল করে। এখানেই শেষ নয়, তার এই অভিযানকে সফল করতে পাঁচটি পয়েন্টেরও উল্লেখ করেছেন প্রথম ভারতীয় হিসেবে তিন ফরম্যাটেই সেঞ্চুরি হাঁকানো ব্যাটসম্যান। সেগুলি হল : ১. জম্মু ও কাশ্মীরের স্কুল, কলেজ ও গ্রামীণ এলাকা থেকে প্রতিভার খোঁজ। ২. তাদের জন্য প্রশিক্ষণ বা মাস্টার ক্লাসের ব্যবস্থা করা। ৩. মানসিক চাপ নিতে শেখানোর পাঠও দেওয়া হবে তাদের। ৪. শরীরচর্চার জন্য করানো হবে বিশেষ ক্লাস। ৫. স্কিল ট্রেনিং।
এককথায় মেন্টর থেকে কোচ- সবরকমভাবেই তরুণদের পাশে দাঁড়াতে চাইছেন তিনি। জম্মু ও কাশ্মীরে ক্রিকেটের অগ্রগতির স্বপ্ন রায়নার দু’চোখে। খবর : সংবাদপ্রতিদিন’র।