চকরিয়ায় সড়কে প্রাণ গেল তিনজনের

0
173

নিজস্ব প্রতিনিধি, চকরিয়া :
চকরিয়ায় সৌদিয়া চেয়ারকোচ ও মাটিভর্তি ড্রাম্পার ট্রাকের (পিকআপ) মুখোমুখি সংঘর্ষে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এসময় আহত হয়েছেন আট যাত্রী। আশঙ্কাজনক অবস্থায় আহতদের উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের উপজেলার বরইতলী মাদ্রাসা গেট এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন মো. মানিক (৩২), তারেকুল ইসলাম বাবু (২০) মমতাজ আহামদ (২৮)। তাদের মধ্যে মো. মানিক ডাম্পার গাড়ির ড্রাইভার ও তারেকুল ইসলাম বাবু ওই গাড়ির হেলপার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। মানিক ও বাবু ঘটনাস্থলে এবং মমতাজ আহামদ কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।
আহতরা হলেন নিশীথা বড়ুয়া (১৮), অতুল বড়ুয়া (২২), সফুরা খাতুন (৭০) ও হাচিং মং (২৪)সহ মোট আটজন কমবেশি আহত হয়েছে। তাদের মধ্যে মমতাজ আহমদকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। অন্যদের চকরিয়া হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে।
হাইওয়ে পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বান্দরবানের লামা থেকে চট্টগ্রামমুখি সৌদিয়া পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস ও কক্সবাজারের পেকুয়া থেকে মাটিভর্তি ডাম্পার গাড়ি মহাসড়কের চকরিয়ার বরইতলী মাদ্রাসা গেট এলাকায় পৌঁছলে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে দুটি গাড়িই দুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং বাসটি মহাসড়ক থেকে খাদে ছিটকে পড়ে।
সড়ক দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে উপজেলার মহাসড়কের চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.আনিছুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পৌঁছে হাইওয়ে পুলিশের একটি টিম হতাহতদের উদ্ধার করেন। আহতদের হাসপাতালে পাঠানোর পর পরবর্তীতে আইনি প্রক্রিয়া শেষে নিহত দুজনের মরদেহ পরিবারের মাঝে হস্তান্তর করা হয়েছে। অন্যজনের মরদেহ কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে রয়েছে। সেখান থেকে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। তিনি বলেন, দুর্ঘটনা কবলিত গাড়ি দুটি জব্দ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা করা হয়েছে।