চকবাজারে ভিবিডি জেলা গ্রিন ওয়াল : প্লাস্টিক দূষণ থেকে পরিবেশ বাঁচাতে হবে

240

প্লাস্টিক দূষণকে বর্তমানে পরিবেশ বিপর্যয়ের সবচেয়ে উদ্বেগজনক কারণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। যেহেতু প্লাস্টিক সহজেই মাটিতে মিশে যায়না, তাই এর পুনঃব্যবহার, নষ্ট না হওয়া প্লাস্টিক দ্রব্যকে পুনরায় ব্যবহার করা ও একবার ব্যবহার করা যায় এমন প্লাস্টিক পণ্য এড়িয়ে চলে এই বিপর্যয় মোকাবেলা করতে হবে। মুদি দোকান থেকে দেয়া প্লাস্টিক ব্যাগগুলো মাটিতে মিশতে ২০ বছর পর্যন্ত সময় নেয়, প্লাস্টিকের যে কাপগুলোতে কোমল পানীয়, চা, কফি পান করি, এসব পঁচতে সময় নেয় প্রায় ৫০ বছর, আর প্লাস্টিক বোতলের ক্ষেত্রে এ সময় ৪৫০ বছর। এই দীর্ঘ সময় জুড়ে পরিবেশের নানান ক্ষতি করে প্লাস্টিক দ্রব্যগুলো। এই বৈশ্বিক সঙ্কট সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি করতে এবং প্লাস্টিক দূষণ থেকে পরিবেশকে বাঁচানো ও প্লাস্টিক পুনরায় ব্যবহার করা সম্পর্কে জনগণের মধ্যে সচেতনতা তৈরি করার জন্য ভিবিডি-চট্টগ্রাম জেলা ২০১৯ সালে ‘প্রজেক্ট গ্রিন ওয়াল’ নামে একটি অনন্য পরিকল্পনা হাতে নিয়েছিলো। সেখানে তারা সাধারণ মানুষকে প্লাস্টিকের উত্থান এবং জলবায়ু পরিবর্তন সম্পর্কে অবহিত করে।
ইতিপূর্বে ভিবিডি-চট্টগ্রাম জেলা ‘প্রজেক্ট গ্রিন ওয়াল’র দুইটি পর্ব যথাক্রমে চট্টগ্রামের কোতোয়ালী ও পাঁচলাইশ মডেল থানা ও এনায়েতবাজার শাহী জামে মসজিদে বাস্তবায়ন করেছিলো যা এখন স্বপ্নদর্শন হিসাবে বিবেচিত হচ্ছে। এতে ভলান্টিয়াররা প্লাস্টিকের বোতল কেটে, তাতে গাছ লাগিয়ে রশি দিয়ে দেয়ালে ঝুলিয়ে দেয়। পূর্বের সফলতার ধারাবাহিকতা রক্ষায় এবারে এই পরিকল্পনার ৪র্থ পর্ব চট্টগ্রামের চকবাজার থানার দেয়ালে বাস্তবায়ন করা হয়েছে।
এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লায়ন্স জেলা ৩১৫-বি৪, বাংলাদেশের গভর্নর লায়ন সুকান্ত ভট্টাচার্য এমজেএফ, ভাইস গভর্নর ১ লায়ন সাগর দোভাষ, ২য় ভাইস জেলা গভর্নর লায়ন শামসুদ্দিন সিদ্দিকী পিএমজেএফ, কেবিনেট সেক্রেটারি লায়ন অশেষ কুমার উকিল, ট্রেজারার লায়ন আরজু, প্রাক্তন কেবিনেট সেক্রেটারি লায়ন জিকে লালা এমজেএফ, লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগাং এর প্রেসিডেন্ট লায়ন আবু নাসের রনি, ভিবিডি চট্টগ্রাম বিভাগের প্রেসিডেন্ট শওকত আরাফাত, বিভাগীয় সেক্রেটারি জিয়াউল হক সোহেল, ভিবিডি-চট্টগ্রাম জেলার প্রেসিডেন্ট কাওসার হোসেন, ভিবিডি-চট্টগ্রাম জেলা বিশ্বাস করে যে, এই কাজটি পরিবেশের সৌন্দর্যবর্ধন এবং ভারসাম্য রক্ষায় ভূমিকা রাখবে এবং ভবিষ্যতে এমন আরো অনেক কাজ তাদের আন্তরিক ভলান্টিয়ারদের মাধ্যমে বাস্তবায়ন করতে পারবে।
আরো উপস্থিত ছিলেন চকবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ রুহুল আমিন সবুজ, লিও ক্লাব চেয়ারম্যান লায়ন মেজবাহ উদ্দিন তুহিন, লিও জেলা সেক্রেটারি লিও আজাদ প্রিমন, মুদ্দাসির, আকিব, সুজয় বড়–য়া প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি