গবেষণায় গুরুত্ব দিয়ে নতুন মাস্টার্স প্রোগ্রাম ইডিইউতে

87

ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটিতে শুরু হতে যাচ্ছে নতুন মাস্টার্স প্রোগ্রাম মাস্টার অব সায়েন্স ইন কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (এমএসসি ইন সিএসই)।
ইউজিসি কর্তৃক অনুমোদন লাভ করায় প্রোগ্রামটিতে শিক্ষার্থী ভর্তির প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। যে কোনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে বিএসসিকৃত শিক্ষার্থীরা এতে ভর্তি হতে পারছে।
প্রোগ্রামটির লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে ফ্যাকাল্টি মেম্বারদের পরিকল্পনার আদ্যোপান্ত বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সামনে তুলে ধরতে গতকাল ৯ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৩টায় এক পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সভায় জানানো হয়, গবেষণাকে গুরুত্ব দিয়ে এই নতুন মাস্টার্স প্রোগ্রামটি শুরু করছে ইডিইউ। এক্ষেত্রে ৩৬ ক্রেডিটের এ প্রোগ্রামটিতে আন্তর্জাতিক মান অনুসারে ৫০ শতাংশ তথা ১৮ ক্রেডিটই থাকছে থিসিসে। বিদেশের নানা উন্নত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইডি ডিগ্রিপ্রাপ্ত ৫ জন ছাড়াও গবেষণায় অভিজ্ঞ বেশ কয়েকজন ফ্যাকাল্টি মেম্বার প্রোগ্রামটিতে ক্লাস ও গবেষণা পরিচালনা করবেন।
স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের অ্যাসোসিয়েট ডিন ড. নাজিম উদ্দিন বলেন, চাকরির বাজারের কথা মাথায় রেখে সাজানো হয়েছে এ মাস্টার্স প্রোগ্রামটির কারিকুলাম। চলমান ইন্ডাস্ট্রি ৪.০ রেভলিউশনের গতি তরান্বিত করতে দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তোলা প্রয়োজন। এর জন্য আবশ্যক পেশাগত শিক্ষা এ মাস্টার্স প্রোগ্রামটিতে দেয়া হবে।
ইডিইউর প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান বলেন, চট্টগ্রামের উচ্চশিক্ষা অঙ্গনে গবেষণানির্ভর শিক্ষার সুযোগ আগ্রহী শিক্ষার্থীর তুলনায় খুবই কম। এ অভাব পূরণে ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই বদ্ধ পরিকর। তারই ধারাবাহিকতায় শুরু হচ্ছে এমএসসি ইন সিএসই। অত্যাধুনিক ল্যাব ও বিশ্বের প্রথম সারির বিশ্ববিদ্যালয়ের আদলে তৈরি করা কারিকুলাম এ প্রোগ্রামটিকে বৈশিষ্ট্যম-িত করে তুলেছে। এছাড়া দুটো পাবলিকেশনের সুযোগ থাকায় এ প্রোগ্রাম পিএইচডিতে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের কাজে দেবে বলে মনে করেন তিনি।
উপাচার্য অধ্যাপক মু. সিকান্দার খান বলেন, ¯œাতকোত্তর বা মাস্টার্স প্রোগ্রামের মূল বিশেষত্ব হওয়া উচিত গবেষণা। ইডিইউর এমএসসি ইন সিএসই প্রোগ্রামে এ বিষয়টিকে ফোকাস করা হয়েছে। পিএইচডি বা উন্নততর গবেষণার জন্য শিক্ষার্থীদের গড়ে তোলার পাশাপাশি উন্নত প্রযুক্তিগত জ্ঞান এই কারিকুলামটিকে ভারসাম্যতা দিয়েছে।
বিশ্বের বেশ কয়েকটি উন্নত বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে আমাদের চুক্তি, জ্ঞানবিনিময় এবং পাশাপাশি প্রথম সারির জার্নালে পেপার প্রকাশ করার সুযোগ পাচ্ছে শিক্ষার্থীরা, যা তাদের গ্রহণযোগ্যতা বাড়িয়ে দিবে।
এছাড়া প্রস্তাবিত এমএসসি ইন ইটিই (ইলেক্ট্রিকাল অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং) প্রোগ্রাম নিয়েও এ সময় আলোচনা হয়। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ফ্যাকাল্টি মেম্বারবৃন্দ। বিজ্ঞপ্তি