ক্রেন তিয়ান-ই দেখতে পারকিতে ছুটছেন মানুষ

0
288

থাকবে একমাস

সুমন শাহ্, আনোয়ারা :
বাঙালির স্বপ্নের পদ্মা সেতু বাস্তবে রূপ পেয়েছে বিজয়ের মাসে। একদিকে মানুষ যেমন ছুটছেন পদ্মা সেতু দেখতে ঠিকই তেমনিই সেতুতে ৪২টি পিলারের ওপর ৪১টি স্প্যান বসানো ভাসমান ক্রেন তিয়ান-ই দেখতে যাচ্ছেন আনোয়ারার অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র পারকি সমুদ্র সৈকতে।
ক্রেনটি বাংলাদেশে আসতে সময় লেগেছিল প্রায় দেড় মাস। কাস্টমস এর ক্লিয়ারেন্স নিয়ে এটি চট্টগ্রাম বন্দর থেকে হংকং হয়ে চীন পৌঁছাবে। যাত্রাপথে সিঙ্গাপুর থেকে জ¦ালানি সংগ্রহ করবে। চীনে পৌঁছাতে এক মাসেরও বেশি সময় লাগতে পারে। আরও এক মাস এটি আনোয়ারার পারকি সৈকতের কাছে থাকবে বলেও জানা গেছে।
গত শুক্রবার সকাল থেকে ভাসমান ক্রেন তিয়ান-ই দেখতে ছুটে আসছেন পারকি সমুদ্র সৈকতে দূর-দূরান্ত থেকে নানা বয়সী মানুষ। অনেকে ছোট নৌকা নিয়েও ক্রেনটি দেখছেন। সৈকতের বুকে দাঁড়িয়ে আছে ক্রিস্টাল গোল্ড জাহাজটিও। সৈকতের নির্মল পরিবেশ আর নৈসর্গিক দৃশ্য দেখতে আসছেন পর্যটকরা।
সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালে পদ্মা সেতুর স্প্যান বসাতে আনা হয়েছিল বিশে^র বৃহৎ ভাসমান ক্রেনবাহী জাহাজ ‘তিয়ান ই’। ৩ বছর ৯ মাসে ৪১টি স্প্যান বসানো শেষে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া থেকে সেটি নিয়ে আসা হয়েছে চট্টগ্রামে। রোববার (১৩ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় মাওয়ার কুমারভোগ কন্সট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে চীনে তৈরি তিন হাজার ৬০০ টন ধারণক্ষমতার ‘তিয়ান ই’ নিয়ে আসা হয় চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে। মাওয়া থেকে কোস্টগার্ড ও নৌবাহিনীর তত্ত্বাবধানে গত মঙ্গলবার ক্রেনটি চট্টগ্রামে নিয়ে আসা হয়। আরও এক মাস এটি আনোয়ারার পারকি সৈকতের কাছে থাকবে। চট্টগ্রাম বন্দর থেকে কাস্টমস ক্লিয়ারেন্স শেষে বড় মাদার ভেসেলে ক্রেনটি হংকং নিয়ে যাওয়া হবে।
সৈকতে ঘুরতে আসা তরুণী জান্নাতুল মাওয়া হ্যাপী বলেন, নতুন প্রজন্মের জন্য বিশাল একটি উপহার বিজয়ের মাসে পদ্মা সেতু। আর সে সেতুতে স্প্যান বসানো ভাসমান ক্রেন পারকিতে আসছে শুনে পরিবারের সবাইকে নিয়ে দেখতে এসেছি। দেখে খুবই ভালো লাগছে।
স্থানীয় বারশত ইউপি চেয়ারম্যান ও বিচ ম্যানেজমেন্ট কমিটির সদস্য এমএ কাইয়ুম শাহ্ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাঙালির স্বপ্নের পদ্মা সেতু বাস্তবে রূপ দিয়েছেন বিজয়ের মাসে। তিনি আরো বলেন, পদ্মা একটা সেতু নয়, দেশের কোটি মানুষের আবেগ অনুভূতি জড়িয়ে আছে এ পদ্মা সেতুর সাথে।