‘ক্রিকেট প্রশাসনেও পথ দেখাক সৌরভ-রাহুল জুটি’

0
215

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
প্রাক্তন ভারতীয় ব্যাটসম্যান ভি ভি এস লক্ষ্মণ মনে করেন, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও রাহুল দ্রাবিড়ের নতুন এই জুটি ভারতীয় ক্রিকেটের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক সৌরভ বর্তমানে বোর্ড প্রেসিডেন্ট। দ্রাবিড় জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির প্রধান। তাদের জুটির উপরেই অনেকটা নির্ভর করছে আগামী প্রজন্মের উত্থান।
লর্ডসে অভিষেক টেস্ট থেকেই সৌরভ ও দ্রাবিড়ের জুটি ভারতীয় ক্রিকেটকে নতুন স্বপ্ন দেখাতে শুরু করে। অবসর নেওয়ার পরেও ভারতীয় ক্রিকেট প্রশাসনের দুই গুরুত্বপূর্ণ পদে রয়েছেন তারা। দু’জনে আলাদা পদে থাকলেও ভারতীয় ক্রিকেট তাদের এক সুতোয় বেঁধে রেখেছে। দ্রাবিড়ের দায়িত্ব নতুন প্রজন্মের ক্রিকেটার তুলে আনা। সৌরভের দায়িত্ব, ভারতীয় ক্রিকেটকে সুষ্ঠু ভাবে পরিচালনা করার। তাই শুক্রবার এক ক্রিকেট সম্প্রচারকারী চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে লক্ষ্মণ বলেছেন, ‘ভারতীয় বোর্ড প্রেসিডেন্ট এখন সৌরভ, এনসিএ প্রধান রাহুল দ্রাবিড়। এই জুটি খুব ভাল কাজ করছে। ভারতীয় ক্রিকেটের উন্নতির জন্য এই জুটি খুব গুরুত্বপূর্ণ। বিশ্বমঞ্চে সব ফরম্যাটে ভারতীয় দল যদি সাফল্য পেতে চায় তা হলে অধিনায়কের পাশাপাশি এই জুটির উপরেও অনেকটা নির্ভর করতে হবে।’
গত বছর ডিসেম্বরে দ্রাবিড়ের ভূমিকা কিছুটা বাড়িয়ে দিয়েছেন সৌরভ। প্রত্যেক ক্রিকেটারকেই দলে সুযোগ পাওয়ার আগে এনসিএ-তে ফিটনেস পরীক্ষা পাশ করে আসতে হবে। সৌরভ বলেছিলেন, ‘রাহুলের কাছ থেকে অনেক কিছু আশা করি। ও সব সময়েই পোক্ত কাজে বিশ্বাসী। রাহুলের ভূমিকা আমরা আরও বাড়াচ্ছি। আগামী মরসুম থেকে ওর দায়িত্ব আরও বেড়ে যেতে পারে।’
এক সময় ভারতীয় ক্রিকেটকে বহু ম্যাচ জিতিয়েছে এই জুটি। আগামী প্রজন্মকেও অনেক স্বপ্ন দেখাচ্ছেন তারা।
কয়েক দিন আগেই সৌরভ ও দ্রাবিড়ের টেস্ট অভিষেকের ২৪ বছর পূর্তি হল। লর্ডসে সে ম্যাচে ১৩১ রান করেন সৌরভ। ৯৫ রানে আটকে গিয়েছিলেন দ্রাবিড়। প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক নিজে অভিষেক ম্যাচে সেঞ্চুরি পাওয়ার পরে চেয়েছিলেন দ্রাবিড়ও যেন সেঞ্চুরি পায়। লর্ডসের ব্যালকনিতে সতীর্থের উৎসবের অপেক্ষায় ছিলেন। সৌরভ বলেছিলেন, ‘দ্রাবিড় যখন ব্যাট করতে আসে আমি তখন ৭০ রানের আশেপাশে। নিজের ব্যাটিংয়ের মধ্যে এতটাই ডুবে ছিলাম যে ও কী করেছে মনে নেই। এটা মনে করতে পারছি যে ১৩১ রান করে চা বিরতির পরে আমি আউট হয়ে যাই। ও তখনও খেলে গিয়েছে।’ সৌরভ আরও বলেন, ‘পরের দিন ওর সেঞ্চুরি দেখার অপেক্ষায় ছিলাম। কিন্তু ৯৫ রানে আটকে যায় ও। দু’জনেই সে ম্যাচে সেঞ্চুরি পেলে সত্যি খুব ভাল হতো।’
খবর : আনন্দবাজার’র।