বাইডেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট

0
248

সুপ্রভাত ডেস্ক :
তুমুল লড়াই আর অনেক তিক্ততার পর ব্যাটলগ্রাউন্ড রাজ্য পেনসিলভেইনিয়ায় জয়ের মধ্য দিয়ে বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডেনাল্ড ট্রাম্পকে হারিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। তার রানিং মেট কমলা হ্যারিস প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ ও প্রথম ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন। পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যে জয়ের মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেন ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেন। সিএনএন-এর পূর্বাভাস অনুযায়ী তার প্রাপ্ত ইলেক্টোরাল ভোটের সংখ্যা ২৭৩। আর এপির পূর্বাভাস অনুযায়ী তার প্রাপ্ত ইলেক্টোরাল ভোটের সংখ্যা ২৮৪। জয়ী হিসেবে বাইডেনের জানুয়ারি মাসে দায়িত্ব নেওয়ার কথা। তবে বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষ থেকে নির্বাচন নিয়ে বেশকিছু মামলা করা হয়েছে।
বাইডেনের জয়ী হওয়ার পূর্বাভাস পাওয়ার আগ পর্যন্ত মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি ও ফক্স নিউজের হিসেবে বাইডেনের ইলেক্টোরাল ভোটের সংখ্যা ছিল ২৬৪। আর সিএনএন ও বিবিসিসহ বেশকিছু সংবাদমাধ্যমের হিসেবে বাইডেনের ভোট ছিল ২৫৩টি। এইসব সংবাদমাধ্যম এখনও জর্জিয়ায় বাইডেনকে জয়ী বলতে নারাজ। তবে ২০ ইলেক্টোরাল ভোটের পেনসিলভানিয়ায় নিশ্চিতের পর আর কোনও সংশয় রইলো না। বাইডেন পৌঁছে গেলেন ম্যাজিক ফিগারে।
ভোট জলিয়াতির প্রমাণ মেলেনি: নির্বাচন কমিশন
যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল নির্বাচন কমিশনার এলেন ওয়াইনট্রাব বলেছেন, এ বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জালায়িতর কোনো প্রমাণ মেলেনি। শনিবার সিএনএনকে তিনি বলেছেন, ‘রাজ্যের ও স্থানীয় কর্মকর্তারা, সারা দেশের নির্বাচন কর্মীরা কাজ করে যাচ্ছেন। নির্বাচন যেভাবে হয়েছে তা নিয়ে খুব সামান্য কিছু অভিযোগ আমরা পেয়েছি। ‘আমি বলতে চাই, ভোট জালিয়াতির কোনো ধরনের প্রমাণ কোথাও পাওয়া যায়নি। অবৈধভাবে ভোট দেওয়ার কোনো প্রমাণ নেই। এ বিষয়ে আমার কথা বিশ্বাস করতে হবে, এমন নয়। কারণ সারা দেশের মানুষ দেখেছে, নির্দলীয় পর্যবেক্ষকরা দেখেছেন, কীভাবে এ নির্বাচন হয়েছে। ‘জালিয়াতির কোনো অভিযোগ কোথাও পাওয়া যায়নি। যেসব অভিযোগ করা হয়েছে, সেখানেও কোনো প্রমাণ দেওয়া হয়নি।’
শুক্রবারের পর প্রকাশ্য না হওয়া প্রেসিডেন্ট ডেনাল্ড ট্রাম্প হার স্বীকার করতে চাইছেন না বলে সিএনএন জানিয়েছে। তিনি এখন আইনি লড়াই চালিয়ে যেতে বদ্ধপরিকর। খবর বিডিনিউজ।
সিএনএন বলছে, ট্রাম্প এখনও পরাজয় মেনে নেওয়ার বক্তৃতা প্রস্তুত করেননি। কেবল তাই নয়, গত কয়েকদিন ধরে তিনি তার মিত্রদের সঙ্গে আলোচনাতেও নির্বাচনে পরাজয় মেনে নেওয়ার বিন্দুমাত্র ইচ্ছা নেই বলে জানিয়েছেন।
ট্রাম্পকে গোয়ার্তুমি ছাড়াতে এবং বাস্তব পরিস্থিতি বোঝাতে পারবে, এমন একজনের খোঁজ এখন চলছে। এর আগে দৃশ্যত নিজের জয় ঘোষণা করে শুক্রবার রাতে ডেলাওয়ারের উইলমিংটনে সমর্থকদের উদ্দেশে ভাষণ দিয়েছেন জো বাইডেন। ৭ মিনিটের ভাষণে তিনি যুক্তরাষ্ট্রবাসীকে আহ্বান জানিয়েছেন ঐক্যবদ্ধ হয়ে তার পেছনে দাঁড়াতে; বলেছেন, ভোট ঘিরে তিক্ততা ভুলে সামনের দিকে তাকাতে। বাইডেন বলেন, “সংখ্যাগুলো বলে দিচ্ছে .. এটা এখন স্পষ্ট এবং বলাই যায়, আমরা জিততে চলছি। ব্যাটেলগ্রাউন্ড রাজ্যগুলোর সবশেষ ফল দেখিয়ে তিনি বলেন, ‘২৪ ঘণ্টা আগে আমরা পেনসিলভেইনিয়ায় পিছিয়ে ছিলাম আর এখন আমরা পেনসিলভেইনিয়া জয় করতে যাচ্ছি। আমরা অ্যারিজোনায় জয়ী হচ্ছি, নেভাডায় জয়ী হচ্ছি, নেভাডায় দ্বিগুণ ভোটে এগিয়ে গেছি আমরা। “গতকাল থেকে কী ঘটেছে, শুধু তার দিকে তাকান। ২৪ ঘণ্টা ধরে জর্জিয়ায় আমরা পিছিয়ে ছিলাম, এখন আমরা এগিয়ে আর এই রাজ্য আমরা জয় পেতে যাচ্ছি।’ আমরা ৩০০ ইলেকটোরাল ভোটের পথে আছি। আমরা সাত কোটি ৪০ লাখেরও বেশি ভোট পেয়েছি। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে যে কোনো প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর পাওয়া ভোটের চেয়েই এটি বেশি। জাতি আমাদের সঙ্গে আছে। হোয়াইট হাউজে যাওয়ার প্রস্তুতির জন্য নিজের রানিং মেট কমলা হ্যারিসকে নিয়ে পরামর্শকদের সঙ্গে ইতোমধ্যে বৈঠক সেরে ফেলার কথাও জানিয়েছেন তিনি। জাতির মধ্যে বিভেদ দেখা দিয়েছে স্বীকার করে নিয়ে ভোটের শেষে তিক্ত অতীত ভুলে সামনে তাকাতে যুক্তরাষ্ট্রবাসীকে আহ্বান জানিয়েছেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী।