আজ থেকে খুলছে বান্দরবানের সব পর্যটন কেন্দ্র

0
287
বান্দরবানে পর্যটকদের ভিড় (ফাইল ছবি)- সুপ্রভাত

নিজস্ব প্রতিবেদক, বান্দরবান :

দীর্ঘ ৫ মাস বন্ধ থাকার পর অবশেষে ২১ আগস্ট থেকে শর্ত সাপেক্ষে পর্যটকদের জন্য বান্দরবানে খুলে দেয়া হচ্ছে হোটেল মোটেল রিসোর্টসহ সব পর্যটন কেন্দ্র। বুধবার জেলা প্রশাসনের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হওয়ার পর বৃহস্পতিবার দুপুরে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শামীম হোসেন এ তথ্য জানান।

জানা গেছে, করোনা সংক্রমণের কারণে ১৮ মার্চ থেকে পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে বন্ধ করে দেয়া হয় বান্দরবানের সব আবাসিক হোটেল মোটেল গেস্ট হাউজসহ সব পর্যটন কেন্দ্র। দীর্ঘ দিন পর পর্যটন কেন্দ্রসহ হোটেল মোটেল খুলে দেয়ায় খুশি জেলার পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা। এর আগে গত ১৭ আগস্ট খুলে দেয়ার কথা থাকলেও করোনা সংক্রমণের কারণে তারিখ পরিবর্তন করা হয়। পরে বুধবার জেলাপ্রশাসনের বৈঠকে ২১ আগস্ট থেকে জেলার সব পর্যটন কেন্দ্র হোটেল মোটেল খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার ২১ আগস্ট থেকে জেলার সব পর্যটন কেন্দ্র হোটেল মোটেল গেস্ট হাউজগুলো পর্যটকদের জন্য খুলে দেয়া হচ্ছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে পর্যটকরা পর্যটন কেন্দ্রগুলো ভ্রমণ করতে পারবে তবে এক্ষেত্রে কিছু শর্ত আরোপ করা হয়েছে। শর্ত মেনে আপাতত সীমিত পরিসরে সব হোটেল মোটেল গেস্ট হাউজ খোলা রাখা যাবে এবং পর্যটন কেন্দ্রগুলোতেও পর্যটকরা ভ্রমণ করতে পারবে।

পরিবহন শ্রমিক নেতা বাহাদুর বলেন, করোনায় লকডাউনের কারণে পর্যটন কেন্দ্র হোটেল মোটেল বন্ধ থাকায় পরিবহন শ্রমিকরা বেকার হয়ে পড়েছে। অনেকে অন্য পেশায় চলে গেছে। পর্যটন নগরী হওয়ায় বন্ধের সময় বান্দরবানে প্রচুর পর্যটক বেড়াতে আসে কিন্তু পর্যটন স্পট বন্ধ থাকায় পর্যটকরা আসতে পারছে না। আর পর্যটক না আসলে গাড়ী বন্ধ থাকে। তাই পর্যটন কেন্দ্র খুলে দেয়ায় খুশি।

ফানুস রিসোর্টের পরিচালক ইমরান উদ্দীন বলেন, দীর্ঘ ৫ মাস বন্ধ থাকায় কর্মচারীও বিদায় করে দিয়েছি এতে সঠিক পরিচর্যার অভাবে হোটেলের অনেক আসবাবপত্র নষ্ট হয়ে গেছে। এগুলো আবার নতুন করে কিনতে হচ্ছে। প্রতি বছর বন্ধের সময় বান্দরবানে প্রচুর পর্যটক আসে কিন্তু দুই ঈদে লকডাউন থাকার কারণে পর্যটন কেন্দ্র বন্ধ থাকায় পর্যটকরা আসতে পারেনি। হোটেল মোটেল বন্ধ থাকায় লোকসান গুনতে হয়েছে। পর্যটন কেন্দ্র খুলে দেয়ায় প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানাই আশা করি আবারো পর্যটক আসবে ব্যবসা করতে পারব।

বান্দরবান হোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘ ৫ মাস পর পর্যটন কেন্দ্রসহ হোটেল মোটেল গেস্ট হাউজ খুলে দেয়া হচ্ছে এ জন্য প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানাই। পর্যটন কেন্দ্র বন্ধ থাকায় পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা বিপুল পরিমাণ ক্ষতির সম্মুক্ষীন হয়েছে। পর্যটন কেন্দ্র খুললে আশা করি পর্যটকরা বেড়াতে আসবে এবং সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা তাদের দৈনন্দিন খরচগুলো অন্তত যোগাড় করতে পারবে। যে ক্ষতি হয়েছে সেটি পুষিয়ে নেয়া সম্ভব নয়।

বান্দরবান জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. শামীম হোসেন বলেন, কিছু শর্ত সাপেক্ষে কাল ২১ আগস্ট থেকে পর্যটকদের জন্য পর্যটন কেন্দ্রসহ জেলার সব হোটেল মোটেল গেস্ট হাউজগুলো খুলে দেয়া হচ্ছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে পর্যটকরা পর্যটন কেন্দ্রগুলো ভ্রমণ করতে পারবে।