কর্তৃপক্ষকে অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলর : ভার্চুয়াল ক্লাস ইডিইউকে অনন্য করে তুলেছে

0
180

কভিড-১৯ প্রকোপের প্রেক্ষিতে সব কার্যক্রম অনলাইনে নিয়ে যাওয়ার সময়োপযোগী ও প্রশংসনীয় সিদ্ধান্ত এবং ভার্চুয়াল কালচার গড়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করায় ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি (ইডিইউ) কর্তৃপক্ষকে সাধুবাদ জানিয়েছে অ্যাকাডেমিক কাউন্সিল।
গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত কাউন্সিলের ১৯তম সভায় উপস্থিত ইডিইউর বোর্ড অব ট্রাস্টিজের পক্ষে প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমানকে ধন্যবাদ জানান কাউন্সিলের সদস্যরা। উপাচার্য অধ্যাপক সিকান্দার খানের সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সাঈদ আল নোমান বলেন, বাংলাদেশে কভিড-১৯ সংক্রমণের আগেই অনলাইন কার্যক্রম শুরুর প্রক্রিয়া গ্রহণ করি এবং অনলাইন শিক্ষায় ইডিইউ এক অনন্য মান সৃষ্টি করেছে। একাডেমিক লিডারশিপ ও ফ্যাকাল্টি মেম্বারদের সহযোগিতা ব্যতীত তা সম্ভব হতো না। অন-ক্যাম্পাসের মতো অনলাইন কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ত করে তুলতে অনুপ্রেরণা সৃষ্টিতেও শিক্ষকরা দারুণ ভূমিকা রেখেছেন।
তিনি আরো বলেন, ইডিইউকে বাংলাদেশের অন্যতম অনুসরণীয় বিদ্যাপীঠে পরিণত করতে চাই। করোনার অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে ভবিষ্যতের পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে যাতে আরও মসৃণ ও কার্যকর উপায়ে শিক্ষার্থীদের গড়ে তুলতে পারি, সে লক্ষ্যে ব্লেন্ডেড লার্নিং বা মিশ্র শিক্ষাপদ্ধতি প্রবর্তন করছি। এক অভিনব ব্যবস্থায় ক্যাম্পাস ও অনলাইনে যুগপৎ ক্লাস নেয়া হবে।
সভাপতির বক্তব্যে উপাচার্য প্রফেসর সিকান্দার খান বলেন, ইডিইউ গতানুগতিক কারিকুলাম অনুসরণ করে না। তাই যুগের সাথে তাল মেলাতে আমরা প্রোগ্রামগুলোতে নতুন কোর্স সংযুক্ত করি। এরই ধারাবাহিকতায় এবার নতুন কোর্স হিসেবে এমবিএ প্রোগ্রামে ‘মার্কেটিং এনালিটিক্স’ ও ‘ফরেনসিক একাউন্টিং’ এবং বিবিএ’তে ‘প্রিন্সিপালস অব ট্যাক্সেশন’ যুক্ত হচ্ছে। এছাড়া সভায়, বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ ও উচ্চশিক্ষার প্রস্তুতিমূলক অ্যাক্সেস অ্যাকাডেমির কোর্সগুলো প্রতিটি শিক্ষার্থীর জন্য বাধ্যতামূলক করা হয়েছে বলে তিনি জানান।
সভায় ফল ২০২০ সেমিস্টারের অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডার, বিওটি গ্রান্ট স্কলারশিপ, চেয়ারম্যান ডিস্টিংগুইশড স্কলারশিপ, ডিন’স অ্যাওয়ার্ড ও জেরিন-জাহরা মেমোরিয়াল স্কলারশিপে মনোনীত শিক্ষার্থীদের তালিকা এবং মাস্টার অব পাবলিক পলিসি অ্যান্ড লিডারশিপ প্রোগ্রামের পরিবর্তিত সিলেবাস অনুমোদন দেয়া হয়।
এতে রেজিস্ট্রার সজল কান্তি বড়–য়া, প্ল্যানিং অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট ডিরেক্টর শাফায়েত কবির চৌধুরী, অ্যাসোসিয়েট ডিন যথাক্রমে স্কুল অব লিবারেল আর্টসের মুহাম্মদ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী, স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ড. মো. নাজিম উদ্দিন ও স্কুল অব বিজনেসের ড. মোহাম্মদ রকিবুল কবির প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি