কক্সবাজার পৌর মেয়রের শ্যালক মিজানুরের ৪ কোটি টাকা জব্দ

0
264

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার :

কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমানের শ্যালক মিজানুর রহমানের ৪ কোটি টাকা জব্দ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।
কক্সবাজারের ভূমি অধিগ্রহণ সংক্রান্ত দুর্নীতিতে জড়িত থাকার অভিযোগে ফাস্ট সিকিউরিটি ব্যাংকের কক্সবাজার শাখায় অভিযান চালিয়ে মিজানুর রহমানের নামে এফডিআর করা ওই টাকা জব্দ করা হয়েছে।
বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকালে দুর্নীতি দমন কমিশন চট্টগ্রাম কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক শরীফ উদ্দিনের নেতৃত্বে একটি দল এ টাকা জব্দ করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুদকের এক কর্মকর্তা। মিজানুর রহমান ঝিলংজা ইউনিয়নের উত্তর মুহুরী পাড়ার মৃত আবদুল গণির ছেলে এবং মেয়র মুজিবুর রহমানের স্ত্রীর বড় ভাই (শ্যালক)।
এর আগে ২১ সেপ্টেম্বর মেয়র মুজিবুর রহমান ও তার ছেলে আওয়ামী লীগ নেতা মেহেদী হাসানের সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের একটি শাখা থেকে ২০ লাখ ১২ হাজার টাকা জব্দ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। একই দিন সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকে থাকা কক্সবাজার পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ওমর ছিদ্দিক লালুর অ্যাকাউন্ট থেকে ১৭ হাজার ৮৩০ টাকা জব্দ করা হয়েছিল।
এছাড়া ১৪ সেপ্টেম্বর দুদকের টিম মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের শাখা থেকে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের ১১টি একাউন্ট থেকে ১৭ লাখ ৪৮ হাজার ৩৯০ টাকা জব্দ করেছে।
এছাড়া ১৫ সেপ্টেম্বর পৌর মেয়র মুজিবুর ও তার পরিবারের ৬ কোটি টাকার সম্পত্তির খোঁজ পায় দুদক।
১৭ সেপ্টেম্বর কক্সবাজার সাব রেজিস্ট্রি অফিস থেকে পৌরসভা মেয়র মুজিবুর রহমানের আটটি দলিল জব্দ করে দুদক। এর মধ্যে তিনটি ৩৩ লাখ ৯০ হাজার টাকায় বায়নাকৃত। অন্যদিকে বাকি পাঁচটি আমমোক্তারনামা। জব্দ করা দলিলের জমির পরিমাণ ৮৭ দশমিক ৮৩ শতক।
প্রসঙ্গত, কক্সবাজারে বিভিন্ন প্রকল্পের ভূমি অধিগ্রহণে দুর্নীতির অভিযোগ অনুসন্ধান করতে গিয়ে দুদক বেশ কিছু চক্রের খোঁজ পেয়েছে। এসব চক্রের অন্তত ৬০ জন সদস্য কক্সবাজারে চলমান ৭০টিরও বেশি প্রকল্পে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ কোটি টাকার উন্নয়নকাজ থেকে বিপুল অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।
বিশস্ত সূত্র জানায়, মিজানুর রহমানকে ২৭ সেপ্টেম্বর দুদক চট্টগ্রাম কার্যালয়ে হাজির হওয়ার জন্য বলা হয়েছে।