ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার মাধ্যমে দুর্যোগ মোকাবেলা করতে হবে

0
100

সাদার্ন ইউনিভার্সিটিতে ভার্চুয়াল আলোচনা

সাদার্ন ইউনিভার্সিটির ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের উদ্যোগে ‘কোভিড -১৯ প্রেক্ষিতে বাংলাদেশের দারিদ্র্য পরিস্থিতি এবং নিরসনের উপায়’ শীর্ষক একটি ভার্চুয়াল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সাদার্ন ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য অধ্যাপক প্রকৌশলী এম আলী আশরাফ অনলাইনে যুক্ত হয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে এ আলোচনার উদ্বোধন করেন।
সাদার্ন ইউনিভার্সিটির উদ্যোক্তা ও প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক সরওয়ার জাহান, বিশিষ্ট সমাজবিজ্ঞানী ও গবেষক খন্দকার সাখাওয়াত আলী, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. ইসরাত জাহান, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ড. এইচ.এম. সলিমুল্লাহ এবং ব্র্যাকের ব্যবস্থাপক (অ্যাডভোকেসি, অতি-দরিদ্র গ্রাজুয়েশন প্রোগ্রাম) উপমা মাহবুব অনলাইনে যুক্ত থেকে উপরোক্ত বিষয়ে আলোকপাত করেন। সমাজবিজ্ঞানী ও গবেষক খন্দকার সাখাওয়াত আলী দারিদ্র্য পরিস্থিতির উপর মহামারী কোভিড-১৯ এর প্রভাবের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন এবং করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবের ফলে যে সকল ক্ষতি হয়েছে তা মোকাবেলা করার উপায় ও করণীয় উল্লেখ করে পরামর্শ প্রদান করেন। তিনি বলেন, ‘আমাদের নজর রাখতে হবে করোনা ভাইরাসের উদ্ভূত পরিস্থিতিকে পুঁজি করে স্বার্থান্বেষী মহল যাতে ফায়দা লুটে নিতে না পারে এবং যাতে এটি ব্যবসা বা বাণিজ্যে পরিণত না হয়’। প্রফেসর সরওয়ার জাহান বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতি আমাদের জন্য অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। কারণ এই মহামারী বৈশ্বিক। সমন্বয়, পরিকল্পনা ও ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার মাধ্যমে এই দুর্যোগ মোকাবেলা করতে হবে। বাংলাদেশের অর্থনীতিতে কোভিড -১৯ এর প্রভাব নিয়ে আলোচনা করেন ড. এইচ. এম.সলিমুল্লাহ। তিনি করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) এর প্রাদুর্ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত শিল্প, ব্যবসা ও কৃষি খাতের জন্য সরকারের প্রণোদনা প্যাকেজ সমূহের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন।
উপমা মাহবুব কোভিড -১৯ এর প্রাদুর্ভাবের ফলে সৃষ্ট দারিদ্র্য পরিস্থিতি নিরসনে ব্র্যাক কর্তৃক গৃহীত কর্মসূচি ও উদ্যোগসমূহ তুলে ধরেন। আলোচনা অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শাকিনা সুলতানা পমি। বিজ্ঞপ্তি