এবারের আইপিইলের স্পন্সর ড্রেম-১১

0
196

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক
প্রতীক্ষার অবসান। চলতি বছরের আইপিএলের টাইটেল স্পনসরের নাম ঘোষণা করে দিল ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। জানিয়ে দেওয়া হল, চীনা কোম্পানি ভিভো এবারের জন্য টুর্নামেন্টের স্পনসরশিপ থেকে সরে দাঁড়ানোয় কাকে বেছে নেওয়া হল মূল স্পনসর হিসেবে।
বিসিসিআই আগেই জানিয়েছিল, ১৮ আগস্ট অর্থাৎ আজই আইপিএল ১৩-র টাইটেল স্পনসরের নাম ঘোষণা করবে। আর মঙ্গলবার সবদিক বিচার করে ড্রিম ইলেভেনকে মূল স্পনসর হিসেবে বেছে নেওয়া হল। অর্থাৎ সংযুক্ত আবর আমিরশাহীতে আয়োজিত হতে চলা আইপিএলের নতুন নাম হবে ড্রিম ইলেভেন আইপিএল। আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ব্রিজেশ প্যাটেল এদিন জানান, ২২২ কোটি টাকার চুক্তিতে এই অনলাইন গেমিং সংস্থার সঙ্গে এবছর চুক্তি করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, গত জুনে লাদাখ সীমান্তে ভারত-চিন সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয় পরিস্থিতি। চিনা সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে শহিদ হল ২০ জন ভারতীয় সেনা জওয়ান। তারপর থেকেই দেশজুড়ে চীনের বিরুদ্ধে ক্ষোভের আগুন জ্বলে ওঠে। একগুচ্ছ চিনা অ্যাপ ভারতে নিষিদ্ধ করার কথা ঘোষণা করে কেন্দ্র। এমন পরিস্থিতির মধ্যেও বিসিসিআই প্রথমে জানিয়েছিল, চিনের মোবাইল প্রস্তুতকারী সংস্থা ভিভো-কেই টাইটেল স্পনসর হিসেবে রেখে দেওয়া হচ্ছে। যা নিয়ে শুরু হয় তীব্র বিতর্ক। পরে পরিস্থিতি প্রতিকূল বুঝে নিজেরাই টুর্নামেন্ট থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় ভিভো। জানিয়ে দেয়, চলতি বছর তারা টুর্নামেন্টের স্পনসর হিসেবে থাকবে না। বাকি চুক্তির মেয়াদ আগামী তিন বছরে শেষ করবে।
তারপর থেকেই নয়া খোঁজ শুরু হয় নয়া স্পনসরের। আইপিএলের সঙ্গে নাম জোড়ার দৌড়ে উঠে আসে রিলায়েন্স, আদানী গোষ্ঠীর নাম। ভারতীয় কোম্পানির পাশাপাশি বিদেশি কোম্পানি হিসেবে ছিল কোকা-কোলাও। পরে বাবা রামদেবের পতঞ্জলিও স্পনসর হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে। বিসিসিআই জানিয়ে দিয়েছিল, যে কোম্পানির বাজারি মূলধন ৩০০ কোটির বেশি, একমাত্র তারাই এর জন্য আবেদন জানাতে পারবে। সেই মতো তালিকায় শামিল হয়েছিল ড্রিম ইলেভেনও। টাটা সনস, বাইজুস, আনঅ্যাকাডেমি-সহ সকলকে ছাপিয়ে শেষমেশ তাদেরই ভাগ্যের শিকে ছিঁড়লো। আজ থেকে ২০২০-র ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত চুক্তিবদ্ধ হল তারা। খবর : সংবাদপ্রতিদিন’র।