আলোচনা সভা : যুবকদের কর্মসংস্থান বাড়ানোর তাগিদ

0
147

বাংলাদেশের যুব সমাজ কর্মক্ষম ও সম্ভাবনাময়। তাদের সম্ভাবনাকে পুরোপুরি কাজে লাগিয়ে উৎপাদনমুখী দক্ষ মানবসম্পদে রূপান্তর করতে হবে। প্রতিবছর বিপুল পরিমাণ শিক্ষার্থী কর্মক্ষেত্রে যুক্ত হচ্ছে কিন্তুু সেই অনুপাতে কর্মক্ষেত্র বাড়ছে না যা উদ্বেগজনক। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার সাথে দক্ষতার সমন্বয় জরুরি বলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মত দেন ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ও এসডিজি ইয়ুথ ফোরাম’র ‘মানসম্পন্ন শিক্ষা’ কর্মসূচির উপদেষ্টা ড. ডেভ ডোল্যান্ড।
নগরীর লালখান বাজারস্থ যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর মিলনায়তনে এসডিজি ইয়ুথ ফোরাম’র উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব দিবসের আলোচনা সভা এসডিজি ইয়ুথ ফোরামের সভাপতি নোমান উল্লাহ বাহার’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।
সংগঠনের দপ্তর সম্পাদক মিনহাজুর রহমান শিহাবের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর কোতোয়ালী জোনের (চট্টগ্রাম) কর্মকর্তা জাহান উদ্দীন। বিশেষ অতিথি ছিলেন আনসার ভিডিপির ১৫ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক এ.এস.এম. আজিম উদ্দীন, গর্ভমেন্ট টিচার্স ট্রেনিং কলেজের প্রশিক্ষক ও শিক্ষাবিদ শামসুদ্দীন শিশির, ইকো ফ্রেন্ডসের সভাপতি উত্তম কুমার আচার্য, ইপসা’র সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম, উদ্যোক্তা লায়ন এম.এ. হোসেন বাদল, এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেনের ট্রাভেল ও লজিস্টিকস ম্যানেজার শেখ ইমরান হোসেন, চৌধুরী মিফতাউল হক, যুব নারী উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি আফরোজা সুলতানা পূর্ণিমা, শিশির গ্রুপের চেয়ারম্যান শাহ জাহান, আলোর আশা যুব ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মুহাম্মদ আনোয়ার এলাহি ফয়সাল, যুবনেতা ইকবাল মুন্না, কাইয়ুমুর রশীদ বাবু, এসডিজি ইয়ুথ ফোরাম’র সদস্য মোহাম্মদ আব্দুর রহমান, ওব্যাট থিংক ট্যাঙ্ক কর্ণফুলীর সভাপতি মোহাম্মদ ইমরান প্রমুখ।
নোমান উল্লাহ বাহার বলেন, যুবসমাজকে নেতিবাচক কর্ম থেকে বিরত রাখা ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির গতিশীলতা চলমান রাখতে ব্যাপক কর্মসংস্থানের সুব্যবস্থা করতে হবে।
স্বাগত বক্তব্যে জাহান উদ্দীন বলেন, বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রাম ও দেশের অগ্রযাত্রায় যুব সমাজের ভূমিকা অগ্রগন্য। করোনা পরিস্থিতিতেও তরুণ ও যুব সমাজের যে কর্মপ্রয়াস ছিল তা প্রশংসনীয়। সদিচ্ছা, অধ্যবসায় ও পরিশ্রমই পারে যুব সমাজকে দক্ষ সম্পদে পরিণত করতে। সরকারের যুববান্ধব বিভিন্ন পদক্ষেপের কথাও উল্লেখ করেন তিনি।
আলোচনায় বক্তারা বলেন, যুব সমাজকে মাদক, সন্ত্রাস ও যাবতীয় অপকর্ম থেকে দূরে রাখতে পারে তাদের উদ্যোক্তা হওয়ার প্রচেষ্টা। একজন যুবক চাইলে অল্প পুঁজি থেকেই শুরু করতে পারে তার উদ্যোক্তা হওয়ার স্বপ্ন। কোনো কাজকেই ছোট করে না দেখে বরং স্বগর্বে তা চালিয়ে গেলে দিন শেষে সফলতা ধরা দিবে।
আমাদের যুব সমাজের উদ্যম ও অদম্য প্রচেষ্টা সত্যিই প্রশংসনীয় ও আশাব্যঞ্জক। তাদের সুপ্ত প্রতিভাকে যথাযথভাবে লালন করে সঠিক সময়ে তা কাজে লাগাতে পারলে তবেই দেশ, জাতি ও ব্যক্তি বিশেষে তা অবদান রাখতে পারবে। বিজ্ঞপ্তি