আইসিসির সিদ্ধান্ত মেনে নিলো অস্ট্রেলিয়া

0
189

 

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াও এমনটাই চাইছিল। করোনার এই পরিস্থিতিতে ১৬ দলের একটা টুর্নামেন্ট আয়োজন কঠিন হবে, বাস্তবতা মেনে নিয়েছিল তারাও। অবশেষে আইসিসির পক্ষ থেকেও ঘোষণা আসল, এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত।

গত দুই মাস ধরে নানা রকম আলোচনার পর সোমবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত করার সিদ্ধান্ত জানায় আইসিসি। বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থার এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার অন্তবর্তীকালীন প্রধান নির্বাহী ও আইসিসির টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রধান নির্বাহী নিক হকলে এক বিবৃতিতে বলেন, ‘কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বজুড়ে স্পোর্টিং টুর্নামেন্টগুলোর ওপর প্রভাব ফেলেছে। ক্রিকেটও তার বাইরে নয়।’

তিনি যোগ করেন, ‘এমন পরিস্থিতিতে অক্টোবর থেকে ১৬ দলের এই আন্তর্জাতিক আসরটি আয়োজন করা খুবই জটিল এবং ঝুঁকিও আছে। তাই এই আসরটি স্থগিত করাকেই সঠিক বলে মনে করেছি আমরা।’

আগামী ১৮ অক্টোবর থেকে ১৫ নভেম্বর থেকে অস্ট্রেলিয়ায় হওয়ার কথা ছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপটি। কিন্তু ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াই বারবার বলে আসছি, করোনার এই পরিস্থিতিতে তাদের দেশে এমন একটি আসর আয়োজন করার প্রস্তুতি নেই।

আইসিসির সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে হকলে বলেন, ‘আমরা অস্ট্রেলিয়ায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত করার বিষয়ে আইসিসির সিদ্ধান্ত মেনে নিচ্ছি। এই সিদ্ধান্তটা হয়েছে দর্শক, খেলোয়াড়, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিরাপত্তা এবং ভালোর জন্যই।’

আইসিসি জানিয়েছে, ২০২১ সালের শেষের দিকে একটা এবং ২০২২ সালের শেষের দিকে আরেকটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজিত হবে। আগামী বছর ভারতের মাটিতে হওয়ার কথা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। তবে আইসিসি নিশ্চিত করে বলতে পারেনি, কোন বছরে বিশ্বকাপটি কোন দেশে হবে।

তবে পরে যখনই সময় ঠিক করা হোক, তখন অস্ট্রেলিয়া প্রস্তুত হতে পারবে বলেই বিশ্বাস হকলের। তিনি বলেন, ‘ছেলেদের ক্রিকেটের সেরা এই বৈশ্বিক টুর্নামেন্টটি ২০২১ কিংবা ২০২২ সালে যখনই আয়োজন করার দায়িত্ব পাই; আমরা আত্মবিশ্বাসী, দেশের বিভিন্ন ভেন্যুতে দর্শকদের স্বাগত জানাতে পারব।’

খবর :জাগোনিউজ’র।