আইপিএলে ক্ষতিপূরণের টাকা পেতে বীমা সংস্থার কাছে ভিডিও ফুটেজ জমা দিলেন স্টার্ক

244

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
১.৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিনিময়ে ২০১৮ আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি কলকাতা নাইট রাইডার্সে অন্তর্ভুক্তি ঘটেছিল মিচেল স্টার্কের। কিন্তু চোটের কারণে সেবার আইপিএল খেলা হয়ে ওঠেনি অজি ফাস্ট বোলারের। স্বাভাবিকভাবেই আইপিএল চুক্তি বাতিল হয়েছিল স্টার্কের। কিন্তু আইপিএল চুক্তির বীমা করিয়ে রেখেছিলেন তিনি। সেই বীমা মোতাবেক বিমা সংস্থার কাছে চোটের ভিডিও ফুটেজ জমা দেওয়া সত্ত্বেও ১.৫৩ মিলিয়ন হাতে পাননি অজি স্পিডস্টার।
সংস্থার কাছে জমা দেওয়া স্টার্কের ভিডিও ফুটেজ নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছিল খোদ বীমা সংস্থাটি। ঠিক সেই কারণেই বীমা মোতাবেক চুক্তি বাতিল হলেও টাকা পাওয়া হয়নি স্টার্কের। তাই আবার ভিডিও ফুটেজ জমা দিলেন তিনি। ১.৫৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার হাতে না পাওয়ায় গতবছর এপ্রিলেই বীমা সংস্থার বিরুদ্ধে মামলা করেন স্টার্ক। ২০১৮ পোর্ট এলিজাবেথে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্টের সময় স্টার্ক চোট পেয়েছিলেন, এটা মেনে নিতে চায়নি সংশ্লিষ্ট সংস্থা।
সেকারণেই পুনরায় স্টার্কের ম্যানেজার অ্যান্ড্রু ফ্রেসার ফক্স স্পোর্টেসর দুটি ভিডিও ফুটেজ জমা দিয়েছেন সংস্থায়, যেখানে পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টে তার চোট পাওয়ার প্রমাণ রয়েছে। বীমার নিয়ম অনুযায়ী আচমকা এবং অপ্রত্যাশিত চোট পেলে তবেই বীমার টাকা হাতে পাবেন স্টার্ক। অজি তারকা এক্ষেত্রে সংস্থার কাছে জমা দেওয়া ভিডিও ফুটেজে সেই প্রমাণই দিতে চেয়েছেন। তবে সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয়েছে স্টার্কের জমা দেওয়া ভিডিও ফুটেজ দু’টি এখনও পর্যালোচনা করে দেখার সময় পায়নি তারা। সিডনি মর্নিং হেরাল্ডে’র রিপোর্ট অনুযায়ী আগামী ১২ অগস্ট ফের মামলার শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে। স্টার্ক এব্যাপারে তার অর্থোপেডিক সার্জেন রাসেল মিলারের সাহায্য নিয়েছেন। যিনি স্টার্কের এই চোটকে ‘জটিল’ বলে উল্লেখ করেছিলেন। সেই চোট গত ১০মার্চ ২০১৮ স্টার্ক পেয়েছিলেন বলে উল্লেখ রয়েছে সার্জেন মিলারের রিপোর্টে। অন্যদিকে বীমা সংস্থার তরফ থেকে চিকিৎসক সিমাস ডাল্টন স্টার্কের চিকিৎসকের রিপোর্ট নস্যাৎ করে জানিয়েছিলেন ১০মার্চ, ২০১৮ কোনও চোটই পাননি অজি স্পিডস্টার। এখন স্টার্কের ম্যানেজারের নয়া পেশ করা ভিডিও খতিয়ে দেখে বীমা সংস্থা কী সিদ্ধান্ত নেয়, সেটাই দেখার।
তথ্যসূত্র : কলকাতাটোয়েন্টিফোর’র।