সুস্থ থাকতে নিরাপদ খাদ্যের কোনো বিকল্প নেই

0
97

সার্কিট হাউসে সেমিনার

চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদ এনডিসি বলেছেন, সুস্থভাবে বেঁচে থাকতে হলে নিরাপদ খাবারের বিকল্প নেই। নিরাপদ খাবার নিয়ে সচেতনতার বিষয়ে আমরা এখনো শূন্যের কোটায়। যে খাবার খেলে মানুষ অসুস্থ হবেনা সেটাই নিরাপদ খাবার। শাক-সবজি, ফলমূলসহ অন্যান্য নিরাপদ খাবার নিশ্চিত করতে না পারলে জাতি অসুস্থ ও মেধাশূন্য হয়ে পড়বে।
মুজিববর্ষ উপলক্ষে গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে আয়োজিত ‘খাদ্যের নিরাপত্তা’ শীর্ষক বিভাগীয় পর্যায়ের সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের সহযোগিতায় বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ এ সেমিনারের আয়োজন করেন।
তিনি বলেন, দেশের মানুষের খাদ্য, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও বাসস্থান নিশ্চিত করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব। বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের একার পক্ষে নিরাপদ খাবার উপহার দেয়া সম্ভব নয়, এটির জন্য প্রয়োজন সমন্বিত উদ্যোগ। ভেজাল খাবার খেলে কি হবে তা আমরা ও আমাদের সন্তানদের জানতে হবে। খাবার উৎপাদন বা তৈরিকালে ভেজাল দ্রব্য না মেশানোর বিষয়ে শ্রমিকরা সচেতন হলে আমরা বিষমুক্ত খাবার পেতে পারি। ভেজাল খাবার আমরা বর্জন করবো। সকলেই সুস্থ থাকতে হলে নিরাপদ খাদ্যাভাস গড়ে তোলার কোনো বিকল্প নেই।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ও সরকারের অতিরিক্ত সচিব মো. আব্দুল কাইউম বলেন, দুষিত ও অনিরাপদ খাবার আমাদের অসুস্থ করে তুলছে। নিরাপদ খাদ্য আইন, ২০১৩ বাস্তবায়নে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।
অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) মোহাম্মদ মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে ও বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের নিরাপদ খাদ্য অফিসার নাজমুস সুলতানা সীমার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সেমিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ও সরকারের অতিরিক্ত সচিব মো. আব্দুল কাইউম।
এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের পরিচালক (মান) আবু সাঈদ মো. নোমান। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের সদস্য প্রফেসর ড. আবদুল আলীম।
সেমিনারে বক্তব্য রাখেন বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবীর, অধ্যাপক ড. মো. জুবাইদুল আলম, সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরিচালক নুসরাত সুলতানা, বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের উপ-পরিচালক (স্থানীয় সরকার) মো. দেলোয়ার হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এল.এ) ড. বদিউল আলম, সিএমপি’র অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মির্জা সায়েম মাহমুদ, জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. হাসান, ক্যাব’র সভাপতি এস.এম নাজের হোসাইন, রাউজান পৌর মেয়র দেবাশীষ পালিত ও বনফুল গ্রুপের পরিচালক আরিফুল ইসলাম প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি