শিক্ষার্থীদের হল খোলার দাবি

0
71

হলে তল্লাশি, ২৩ শিক্ষার্থীর পরিচয়পত্র জব্দ

চবি সংবাদদাতা :
বন্ধ থাকা চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ৫টি আবাসিক হলে তল্লাশি চালিয়ে ২৩ জন ছাত্রের পরিচয়পত্র জব্দ করেছে কর্তৃপক্ষ। জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে হলে অবস্থান করে আসছিল তারা।
গতকাল সোমবার ভোর সাড়ে ৬টা থেকে সকাল সাড়ে ৮টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টরিয়াল বডি পুলিশের সহায়তায় শাহজালাল হল, শাহ আমানত হল, সোহরাওয়ার্দী হল, এ এফ রহমান হল এবং আলাওল হলে এ তল্লাশি অভিযান চালায়। এসময় এ এফ রহমান হলে ২০ জন ও আলাওল হলে ৩ জন শিক্ষার্থীকে পাওয়া যায়। এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলসমূহ খুলে দেওয়ার দাবি জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।
গতকাল সোমবার দুপুর ১২টায় সীমিত পরিসরে হলসমূহ খুলে দেওয়াসহ ৫ দফা দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধন করে তারা। মানববন্ধন শেষে প্রক্টর বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।
দাবিগুলো হল
১. সীমিত পরিসরে হলগুলো খুলে শিক্ষার্থীদের আবাসন সঙ্কট নিরসনের ব্যবস্থা করতে হবে। ২. আর্থিক সমস্যার কারণে সবার বাসা ভাড়া করে পরীক্ষা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না, সুতরাং হলগুলো খুলে দিতে হবে। ৩. কটেজ মালিকদের অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বন্ধ করতে হবে। ৪. প্রথম বর্ষ থেকে মাস্টার্স পর্যন্ত পরীক্ষা শুরু হওয়ার কারণে পরীক্ষার্থীরা কটেজ কিংবা রুম ভাড়া পাচ্ছে না, তাই পরীক্ষার্থীদের হলে থেকে পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। ৫. ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে।
প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়া বলেন, পাঁচ হলে তল্লাশি চালিয়ে ২৩ জনের পরিচয়পত্র জব্দ করেছি। তারা দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে হলে অবস্থান করে আসছিল। তাদের প্রক্টর কার্যালয়ে দেখা করতে বলা হয়েছে।
হল খোলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, হলসমূহ খোলার ব্যাপারে আমরা মন্ত্রণালয়, ইউজিসি এবং অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছি। আশা করি শীঘ্রই এ সমস্যার সমাধান করা হবে।