ভাঙন আতঙ্কে হিজলিয়া খাল পাড়ের শতাধিক পরিবার

0
88

নির্বিচারে বালু উত্তোলন

নিজস্ব প্রতিনিধি, উখিয়া :
উখিয়া উপজেলা প্রশাসনের ধারাবাহিক অভিযানেও থামানো যাচ্ছে না বালু উত্তোলন ও পাহাড় কেটে মাটি পাচার বাণিজ্য। এলাকার প্রভাবশালী সিন্ডিকেট বেপরোয়া হয়ে প্রশাসনের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে খাল, ছড়া, পাহাড়সহ স্পর্শকাতর স্থান থেকে নির্বিচারে বালু উত্তোলন করছে। ফলে শত শত পরিবারকে খালের ভাঙনে গৃহহীন হয়ে পড়ার আতঙ্ক নিয়ে বসবাস করতে হচ্ছে।
উপজেলা সদর ইউনিয়ন রাজাপালংয়ের বুক চিরে বয়ে যাওয়া খরস্রোতা রেজুখালের হিজলিয়া অংশে ভাঙন কবলিত এলাকা ঘুরে ভুক্তভোগী পরিবারদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, অবৈধ বালু উত্তোলনের ফলে আসছে বর্ষা মৌসুমে শতাধিক পরিবার গৃহহীন হয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।
হিজলিয়া খাল পাড়ে বসবাসকারী ছিদ্দিক আহমদ, ছৈয়দ হোছন, মোহাম্মদ ইসলামসহ শতাধিক লোক জানান, হলদিয়াপালং ইউনিয়নের ক্লাসপাড়া গ্রামের জনৈক মনির আহমদের শ্রমিকেরা কমান্ডো স্টাইলে হিজলিয়া খাল থেকে বালু লুটপাট পূর্বক পাচার করছে। বালু উত্তোলন বন্ধে গ্রামবাসী প্রতিবাদ করলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় উপজেলা ভূমি অফিসে কর্মরত তহসিলদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
এ ব্যাপারে তহসিলদার আবুল হোছাইনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ঘটনাস্থল হিজলিয়া খালের ভাঙন কবলিত এলাকা থেকে বালু উত্তোলন না করার জন্য বালুমহাল ইজারাদারকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।
বালুমহাল ইজারাদার মনির আহমদ জানান, তিনি বালুমহালটি একসনা ইজারা নিয়ে বালু উত্তোলন করছেন।
খালের ভাঙনে বিধ্বস্ত জনপদ হিজলিয়া খালের প্রবেশ মুখের অংশটি কেন ইজারা দেওয়া হল এমন প্রশ্নের জবাবে সহকারী কমিশনার (ভূমি) অমিমুল এহসান খান বলেন, অবৈধ বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ অভিযান অব্যাহত রাখা হয়েছে। হিজলিয়া খালের স্পর্শকাতর স্থান থেকে কে বা কারা বালু উত্তোলন করছে তা খতিয়ে দেখে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী বলেন, নির্বিচারে বালু উত্তোলনের ফলে হিজলিয়া খালের ভাঙন কবলিত এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে কক্সবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ড সংশ্লিষ্টদের অবহিত করা হলে তাদের অর্থায়নে ভাঙন রোধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
তিনি বলেন, উক্ত এলাকায় স্থায়ীভাবে সংস্কারপূর্বক খালের ভাঙন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ড কয়েক কোটি টাকার একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এমতাবস্থায় উপরোক্ত খাল থেকে বালু উত্তোলনের বিষয়টি খুবই ন্যক্কারজনক। তিনি ইউএনও’র সঙ্গে কথা বলে বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে আশ^স্ত করেন।