বান্দরবানে শিথিল হচ্ছে রেড জোনের লকডাউন

0
271
বান্দরবানের নীলাচলের ফাইল ছবি

সংবাদদাতা, বান্দরবান :

টানা ৩৫ দিনের লকডাউন শেষে অবশেষে আজ ১৬ জুলাই থেকে শিথিল হচ্ছে রেড জোন ঘোষিত বান্দরবান পৌরসভা ও লামা পৌরসভা এলাকার লকডাউন।  বুধবার দুপুরে জেলা প্রশাসক দাউদুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় গত ১০ জুন বান্দরবান সদর উপজেলা পৌরসভা ও লামা উপজেলাকে রেড জোন ঘোষণা করে লকডাউন ঘোষণা করে জেলাপ্রশাসন। এর পর ২১ জুন স্বাস্থ্য বিভাগ নতুন করে বান্দরবান পৌরসভা ও লামা পৌরসভাকে রেড জোন ঘোষণা করলে ২৪ জুন আবারও এ দুই পৌরসভাকে ২১ দিনের জন্য লকডাউন ঘোষণা করে প্রশাসন। এসময় রেড জোন ঘোষিত এলাকায় লকডাউন কার্যকরে কঠোর শর্ত আরোপ করা হয় এবং বন্ধ করে দেয়া হয় সব ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও যান চলাচল। কাঁচাবাজার ও মাছ মাংস এলাকা ভিত্তিক ভ্যানগাড়িতে করে বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়। ওয়ার্ড ভিত্তিক স্বেচ্ছাসেবক টিম গঠনের মাধ্যমে পাড়ায় পাড়ায় লকডাউন কার্যকর করা হয়। এতে সাধারণ জনগণের ভোগানিত্ম দেখা দিলে গত ৫ জুন থেকে সীমিত পরিসরে মুদি মনিহারী ও ফলমুলের দোকান খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত দেয় প্রশাসন। এদিকে ১৫ জুলাই বান্দরবানের রেড জোন ঘোষিত এলাকায় ২১ দিনের লকডাউন শেষ হলে নতুন করে আর লকডাউনের সময় বাড়ানো হবে না বলে জানায় জেলা প্রশাসক মো. দাউদুল ইসলাম। তিনি বলেন, সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে করোনা কালীন নিয়মে সবকিছু চলবে। তবে এড়্গেত্রে সরকারি নিয়ম মেনে চলতে হবে। জনপ্রশাসন ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কিছু নিয়ম নীতির কথা বলেছেন কয়টা থেকে কয়টা দোকান পাট খোলা রাখা যাবে সামাজিক দূরম্নত্ব্ব বজায় রাখতে হবে। বাইরে বের হলে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। জনজীবনের কথা চিনত্মা করে লকডাউন শিথিল করা হচ্ছে। তবে এড়্গেত্রে অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। গণপরিবহন চলাচলের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন,  এ বিষয়ে এখনো কোন সিদ্ধান্ত হয়নি। পরিবহন মালিকরা আসলে তাদের সাথে কথা বলে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত দেয়া হবে।