বাংলা ভাষাকে শুদ্ধভাবে উপস্থাপন করতে হবে

0
45

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন উপলক্ষে বিভিন্ন সংগঠন আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেছেন, শুদ্ধভাবে বাংলাভাষাকে উপস্থাপন করতে হবে। সর্বস্তরে মাতৃভাষায় শিক্ষার অধিকার নিশ্চিতের দাবি জানান তারা।
শিল্পকলা একাডেমি
জেলা শিল্পকলা একাডেমি চট্টগ্রামের উদ্যোগে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০২১ যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়। কর্মসূচির মধ্যে ছিল চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পনের মাধ্যমে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন। শ্রদ্ধা নিবেদন করেন শিল্পকলা একাডেমির কাযনির্বাহী কমিটির সহ সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম বাবু, নির্বাহী সদস্য জেসমিন সুলতানা পারু, বাপ্পা চৌধুরী, কঙ্কন দাশ ও জেলা কালচারাল অফিসার মো. মোসলেম উদ্দিন।
অন্য কর্মসূচির মধ্যে ২০ ফেব্রুয়ারি সকাল ১১টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে চিত্রাংকন, কবিতা আবৃত্তি, হাতের সুন্দর লেখা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। ঐদিন সন্ধ্যা ৬টায় জেলা প্রশাসন চট্টগ্রাম আয়োজিত আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে জেলা শিল্পকলা একাডেমি সঙ্গীত ও নৃত্যদল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করে।
আবৃত্তি চর্চা কেন্দ্র
২১ ফেব্রুয়ারি সকালে নগরীর শহীদ মিনার সংলগ্ন পথে (টি এন টি অফিসের সামনে) মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত হল চট্টগ্রাম আবৃত্তি চর্চা কেন্দ্রের পথ আবৃত্তি অনুষ্ঠান ‘পঙক্তিমালায় একুশ’।
চট্টগ্রাম আবৃত্তি চর্চা কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক মো. ফারুক আজম ও প্রিয়ম কৃষ্ণ দে’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের কথামালায় অংশ নেন আবৃত্তিশিল্পী রাশেদ হাসান, হাসান জাহাঙ্গীর, মাহবুবুর রহমান মাহফুজ, মিশফাক রাসেল, নাট্যজন ম. সাইফুল আলম চৌধুরী এবং মানবিক সংগঠনের পরিচালক নিলুফার ইয়াসমিন জয়িতা। অনুষ্ঠানে স্বরচিত কবিতা পাঠ ও কথামালায় অংশ নেন কবি হোসাইন কবির, ইউসুফ মুহম্মদ, শাহীন মাহমুদ, জসীম মেহবুব, উৎপল কান্তি বড়ুয়া, কেশব জিপসী ও নান্টু বড়ুয়া।
অনুষ্ঠানে একক আবৃত্তি পরিবেশন করেন আবৃত্তিশিল্পী দিলরুবা খানম, সায়েম উদ্দীন, রাবেয়া এঞ্জেলা, নিশাত হাসিনা শিরিন, তৌসিফুল হক, বিশ্বজিৎ পাল, এটিএম সাইফুর রহমান, আচরারুল হক, মৌসুমি চক্রবর্তী, সুতপা চক্রবর্তী, তাজুল ইসলাম, আল আমিন, কানিজ ফাতেমা, দিপান্বিতা চৌধুরী, অহনা বিশ্বাস, পার্থ সেন, আকমান রাসুল, সুজয় দে, লিপি সেন, অর্ণব বড়ুয়া, পুষ্পা সর্ব্ববিদ্যা, জসীম উদ্দীন, ফাতেমাতুজ জোহরা, অঙ্কিতা ভট্টাচার্য, ইভান পাল, শ্রেয়সী স্রোতস্বীনী, ঈশা দে, অমিতা বড়ুয়া, আকতারি ইসলাম, সুস্মিতা দত্ত ও সেলিম ভুঁইয়া।
অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম আবৃত্তি চর্চা কেন্দ্রের বৃন্দ পরিবেশনা ‘কবিতায় স্মরি তাঁরে’ পরিবেশিত হয়। বৃন্দ পরিবেশনা ও একক আবৃত্তিতে অংশ নেন দলের সদস্য ফারুক আজম, অর্পা দে, শিউলি বড়ুয়া, মুনমুন বড়ুয়া, প্রিয়ম কৃষ্ণ, সুদেষ্ণা চৌধুরী, মৃন্ময়ী চৌধুরী, অজন্তা ভট্টাচার্য্য, রূপনা দে, জাহেদ ফানশী, জাবের ফানশী, দীপান্বিতা দীপা ও স্বরবর্ণ আশরাফ। অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন রবীন্দ্রসঙ্গীতশিল্পী শ্রেয়সী রায়, প্রিয়া বৈদ্য ও মুনমুন বড়ুয়া।
চট্টগ্রাম আবৃত্তি চর্চা কেন্দ্রের সভাপতি এহতেশামুল হক’র সমাপনী কথনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শেষ হয়।
ছাত্র ইউনিয়ন
ভাষা শহীদদের স্মরণে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন এবং সর্বস্তরে মাতৃভাষায় শিক্ষার অধিকারের নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছে ছাত্র ইউনিয়ন।
একুশে ফেব্রুয়ারি সংগঠনটির উদ্যোগে বাংলাদেশের বিভিন্ন জাতিসত্তার ভাষার বর্ণমালা নিয়ে মিছিল বের করা হয়।
শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণের পর দারুল ফজলস্থ জেলা অফিসে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলার সভাপতি এ্যানি সেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক টিকলু দে, শিক্ষা ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক নিশান রায়, পাহাড়তলী থানার সভাপতি ডেনি বিশ্বাস, কোতোয়ালি থানার সাংগঠনিক সম্পাদক নাদিয়া নূর প্রাপ্তি, হালিশহর থানার আহ্বায়ক আশিক এলাহী প্রমুখ।
সভায় বক্তারা বলেন, ‘১৯৫২ সালে যে চেতনাকে ধারণ করে আমাদের পূর্বসূরীরা ভাষা আন্দোলন করেছিলেন সেই চেতনা থেকে আমরা বহু দূরে সরে এসেছি। এখনো সর্বক্ষেত্রে বাংলার প্রচলন হয়নি। আমরা সর্বস্তরে মাতৃভাষায় শিক্ষার অধিকার চাই। বাংলা ভাষার পাশাপাশি সকল জাতিগোষ্ঠীর ভাষাকে স্বীকৃতি দিতে হবে। বক্তারা সকল ভাষার বর্ণমালা সংরক্ষণের দাবিও জানান।
বক্তারা আরো বলেন, ‘বাংলা মায়ের বীর সন্তানেরা মাতৃভাষার সম্মান রক্ষার্থে ১৯৫২ সালের এই দিনে বুকের রক্তে রঞ্জিত করেছিলেন রাজপথ। পৃথিবীর ইতিহাসে সৃষ্টি হয়েছিল মাতৃভাষার জন্য আত্মদানের অভূতপূর্ব নজির। মাতৃভাষার জন্য বাঙালির আত্মদানের এই অনন্য ঘটনা স্বীকৃত হয়েছে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে’।
জাতীয় মহিলা সংস্থা
জাতীয় মহিলা সংস্থা চট্টগ্রামের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহীদ দিবস স্মরণে ২১ ফেব্রুয়ারি সকালে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।
শ্রদ্ধা নিবেদনকালে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় মহিলা সংস্থা’র কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান, সাবেক এমপি চেমন আরা তৈয়ব, সংস্থার চট্টগ্রামের সদস্য কল্পনা লালা, সঞ্চিতা বড়ুয়া, জাহান আরা নাজনীন, নির্বাহী কর্মকর্তা শাহানা পারভীন, কর্মকর্তা রুশ্নি আক্তার, জহিরুল ইসলাম, শাহাদাত হোসেন, অবকাশ চাকমা, তাবারক হোসেন, ইকবাল হোসেন, রোমানা আক্তার, সাদিয়া, বৃষ্টি সেনগুপ্তা, সেলিম, নজরুল, সবুজ, সামিন ও প্রশিক্ষণার্থীরা।
মহানগর মহিলা দল
মহানগর মহিলা দলের উদ্যোগে ২১ ফেব্রুয়ারি সকালে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক জেলী চৌধুরী, মহানগর মহিল াদল নেত্রী ফারহানা জসীম, রানী বেগম, জোহরা বেগম, হাবিবা সুলতানা, পারভিন আকতার ফারহানা, রিনা বেগম, ফরিদা ইয়াসমিন, মুক্তা আকতার, রাকিবা আকতার সুমী, লায়লা বেগম প্রমুখ।
নগর জাসাস
আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা (জাসাস) চট্টগ্রাম মহানগর। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাসাস কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্ঠা, চট্টগ্রাম মহানগর জাসাসের সভাপতি সংগীত শিল্পী আব্দুল মান্নান রানা, নগর জাসাসের সিনিয়র সহ সভাপতি দোস্ত মোহাম্মদ, সহ সভাপতি মিনহাজ উদ্দীন সানি, লায়ন এম এ মান্নান ভুঁইয়া, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জাহেদ কায়সার, নাজীম উদ্দীন, সহ সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হান্নান শিবলি, নাহিদা জামান রিতু, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম, দপ্তর সম্পাদক মহিউদ্দীন জুয়েল, সহ দপ্তর সম্পাদক মাহমুদুল হাসান তিতাস, প্রচার সম্পাদক এস এম তারেক, সহ প্রচার সম্পাদক হাফিজুর রহমান, অর্থ সম্পাদক নাহিদা আলম, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক খাইরুল বারি আইরিশ, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক ইশরাত জাহান উর্মি, নগর জাসাসের সদস্য জসীম উদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি