প্রেমিককে বেঁধে তরুণীকে গণধর্ষণ

0
233

ফটিকছড়ি

নিজস্ব প্রতিনিধি, ফটিকছড়ি :
প্রেমিককে বেঁধে রেখে ফটিকছড়িতে ৮ জন মিলে গণধর্ষণ করেছে এক তরুণীকে (১৯)। গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টা থেকে মধ্যরাত আড়াইটার দিকে ভুজপুর থানার নারায়নহাট চানপুর গ্রামের একটি বাগানের পরিত্যক্ত ঘরে এ ঘটনা ঘটে। ভুজপুর থানা পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে।
এ ব্যাপারে ভিকটিম বাদি হয়ে ভূজপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন।
পরে ঘটনার সাথে জড়িত ৫ জনকে আটক করে পুলিশ।
শুক্রবার রাতে এই ঘটনা ঘটলেও জানাজানি হয় শনিবার রাতে। পুলিশ জানতে পারে তদন্তে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পেয়ে রোববার দুপুর পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতার করেছে।
গ্রেফতার পাঁচ জনের মধ্যে চারজনের নাম পাওয়া গেছে। তারা হলেন আবুল মনসুর (৩৫), মো. সালাউদ্দিন (৩৮), মো. ইয়াছিন (২৩), মো. পারভেজ (২৫)।
জানা যায়, চট্টগ্রাম শহরের অক্সিজেন থেকে প্রেমিক নাজিম উদ্দিন (২২) তার প্রেমিকাকে নিয়ে গ্রামের বাড়ি রওয়ানা দেয়। তারা গ্রামের বাড়ি ভুজপুর থানার দাঁতমারা ইউনিয়নের তারাখো এলাকায় পৌঁছালে ৮ জন দুর্বৃত্ত গতিরোধ করে। প্রেমিককে আটকে রেখে পরে ওই তরুণীকে গণধর্ষণ করে দুর্বৃত্তরা।
জানা গেছে, ওই তরুণীর বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালায়। তবে মা-বাবার সঙ্গে চট্টগ্রাম নগরীতে থাকেন এবং একটি কারখানায় চাকরি করেন। ওই তরুণীর সঙ্গে ফকিটছড়ির দাঁতমারা ইউনিয়নের বাসিন্দা এক অটোরিকশাচালক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে এবং তারা বিয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছিল। ওই যুবকের পরিবার মেয়েটিকে দেখতে চেয়েছিল। তাই মেয়েটি ফটিকছড়িতে আসে। ওই যুবক ও তার এক বন্ধুর সঙ্গে শুক্রবার মেয়েটি ফটিকছড়ি আসে।
এ বিষয়ে ভুজপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ আব্দুল্লাহ বলেন, ঘটনার সাথে জড়িত ৫ জনকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বাকীদের গ্রেফতার করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।