পাঁচ পৌরসভায় জয়ী আওয়ামী লীগ

0
95

মাটিরাঙায় শামছুল, রাঙামাটিতে আকবর, পটিয়ায় আইয়ুব, বান্দরবানে বেবী ও চন্দনাইশে মাহাবুবুল
পটিয়া ও চন্দনাইশে সংঘর্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদক :
পাঁচ পৌরসভায় জয় পেয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা। চন্দনাইশ ও পটিয়া নির্বাচনী সহিসংতা হয়েছে।
জেলার মাটিরাঙা পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী শামছুল হক ‘নৌকা’ প্রতীকে ৫,৭২৪ ভোটে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এম এম জাহাঙ্গীর আলম ‘মোবাইল’ ৩,৭৮০ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছেন। এছাড়া বিএনপির শাহজালাল কাজল ‘ধানের শীষ’ প্রতীকে ৩,৬৮৫ ভোট পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন।
বিভিন্ন কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে, ভোট শুরু হওয়ার আগে থেকেই কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল ব্যাপক।
মাটিরাঙা পৌরসভায় গোপন ব্যালটের মাধমে ভোট প্রদানে ধলিয়া কেন্দ্রে মোশারফ নামে এক যুবক জাল ভোট প্রদান করতে চাইলে প্রশাসনের হাতে ধরা পরে। পরে তাকে আটক করে নির্বাচনের পর সন্ধ্যায় ছেড়ে দেয়া হয় বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।
খাগড়াছড়ি নিবার্চন অফিসার ও রির্টানিং কর্মকর্তা রাজু আহম্মেদ জানান, ভোটাররা নিরাপদে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট প্রদান করেছে। কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।
বান্দরবান
বান্দরবান পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে আবারো আওয়ামী লীগ প্রার্থী ইসলাম বেবী বিজয়ী হয়েছেন। ৯৫৬১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে দ্বিতীয়বারের মত মেয়র নির্বাচিত হন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি প্রার্থী জাবেদ রেজা পেয়েছে ৪৫৩৩ ভোট। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই সুষ্ঠুভাবে বিকাল ৪টায় ভোটগ্রহণ শেষ হয়। এদিকে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্পন্ন করতে পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব ও আনসার বাহিনীসহ চারস্তরের নিরাপত্তা বলয় জোরদার করে নির্বাচন কমিশন।
সংরক্ষিত ১ আসনে আনারস প্রতীকে দীপিকা তঞ্চঙ্গ্যা (মনজু), সংরক্ষিত- ২ চশমা প্রতীকে শাহিনা আক্তার সানু এবং সংরক্ষিত ৩ চশমা প্রতীকে এম্যাচিং নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়াও সাধারণ কাউন্সিলর পদে নির্বাচিত হয়েছে ১ নম্বর ওয়ার্ডে নাছির উদ্দিন, ২ নম্বর ওয়ার্ডে মো. আলী, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে অজিত দাশ, ৪নম্বর ওয়ার্ডে ওমর ফারুক, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে মংমংসিং, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে সৌরভ দাশ শেখর, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে হারুন সর্দার, ৮ নম্বর ওয়ার্ডে কামরুল হাসান বাচ্চু এবং ৯ নম্বর ওয়ার্ডে সেলিম রেজা নির্বাচিত হয়েছেন।
পটিয়া
পটিয়ায় নৌকার প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত এ নির্বাচনে ভোটাররা উৎসবমুখর পরিবেশে তাদের ভোট দিয়েছেন। পটিয়ায় কিছু কেন্দ্রে গোলযোগ হলেও রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণা করা হয়। এতে পটিয়ায় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আইয়ুব বাবুল ১৪ হাজার ৮৩৬ ভোটে বিজয়ী হন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষের প্রার্থী নুরুল ইসলাম সওদাগর ১ হাজার ৪৯৪ ভোট পেয়েছেন। মেয়র পদে অন্য দুজন হলেন জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী শামসুল আলম মাস্টার। তিনি পেয়েছেন ১ হাজার ১১৭ ও মোমবাতি প্রতীকের প্রার্থী এম আলী হোছাইন পেয়েছেন ৮৫৬। কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন ১ নম্বর ওয়ার্ডে মোহাম্মদ নাছির, ২ নম্বর ওয়ার্ডে ইঞ্জিনিয়ার রূপক কুমার সেন, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে গিয়াস উদ্দিন আজাদ, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে গোফরান রানা, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে জসিম উদ্দিন, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে শফিউল আলম, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে কামাল উদ্দিন বেলাল, ৮ নম্বর ওয়ার্ডে সরোয়ার কামাল রাজিব ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডে শেখ সাইফুল ইসলাম। মহিলা কাউন্সিলর ১,২,৩ বুলবুল আকতার, ৪,৫,৬ ইয়াসমিন আকতার চৌধুরী ও ৭,৮ ও ৯ সংরক্ষিত আসনে ফেরদৌস বেগম।
কেন্দ্রভিত্তিক ফলাফল ঘোষণা করার পর পটিয়া পৌর নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফল সংগ্রহ ও পরিবেশন কেন্দ্র থেকে অতিরিক্ত আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মো. তারিফুজ্জামান বিজয়ী প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেন।
রাঙামাটি
রাঙামাটি পৌরসভা নির্বাচনে ২২ হাজার ৮০৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে মেয়র হিসেবে পুনঃনির্বাচিত হয়েছেন বর্তমান মেয়র ও জেলা যুবলীগের সভাপতি আকবর হোসেন চৌধুরী।
তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির ধানের শীষের প্রার্থী অ্যাডভোকেট মামুনুর রশীদ মামুন পেয়েছেন ৬ হাজার ৯৩৫ ভোট, জাতীয় পার্টির প্রার্থী প্রজেস চাকমা পেয়েছেন ১৬৯২ ভোট, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির আব্দুল মান্নান রানা পেয়েছেন ২৬০ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী অমর কুমার দে পেয়েছেন ১৯৪৩ ভোট।
চন্দনাইশ
চন্দনাইশ পৌর নির্বাচনে দ্বিতীয় মেয়াদে মেয়র হলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী মাহাবুবুল আলম খোকা। রোববার রাতে উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে প্রাপ্ত বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করেন পৌর নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইমতিয়াজ হোসেন। মাহাবুবুল আলম খোকা নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১৫,৯৫৮ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আইনুল কবির ছাতা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১,৯১৬ ভোট, মুহাম্মদ ফারুক বাহাদুর মোমবাতি প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১,৮২৯ ভোট, মাহাবুবুল আলম চৌধুরী ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪১৩ ভোট।
প্রতিবেদনটি তৈরিতে সহায়তা করেছেন রাঙামাটি ও খাগড়াছড়ি প্রতিবেদক, পটিয়া ও বান্দরবান প্রতিনিধি ও সংবাদদাতা চন্দনাইশ।