নিয়মভঙ্গের কারণে বাদ পড়লেন আর্চার

0
223

 

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :

বিশ্বজুড়ে মহামারীর দাপটের মধ্যেও ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ খেলছে ইংল্যান্ড। করোনার বিপদ থেকে ক্রিকেটারদের বাঁচাতে বিশেষ ব্যবস্থাও করেছিল ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। কিন্তু তাদেরই এক ক্রিকেটার সেই বিশেষ নিয়ম ভঙ্গ করে সতীর্থদের বড়সড় বিপদে ফেলে দিলেন। তিনি জোফ্রা আর্চার।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্টে ইংল্যান্ডের ১৩ সদস্যের দলে ছিলেন আর্চার। মার্ক উড এবং জিমি অ্যান্ডারসনের মতো পেসারকে বিশ্রাম দিয়ে নেওয়া হয়েছিল তাকে। তিনি যে প্রথম একাদশে থাকবেন সেটাও মোটমুটি ঠিকই ছিল। কিন্তু এদিন সকালে ইসিবি জানিয়ে দিল আর্চারকে বাদ দেওয়া হয়েছে। কারণ তিনি ইসিবির ‘বায়ো সিকিওর বাবল’ বা ‘জৈব সুরক্ষিত’ পরিবেশের বিধিভঙ্গ করেছেন। যা এই পরিস্থিতিতে পুরো দলের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ। শুধু ইংল্যান্ড নয়, ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের জন্যও এটা ঝুঁকিপূর্ণ। এর শাস্তি হিসেবে তাকে দ্বিতীয় টেস্ট থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। যা কিনা বেনজির সিদ্ধান্ত। পরিবেশ সংক্রান্ত বিধি ভাঙার জন্য কোনও ক্রিকেটারের বাদ যাওয়াটা সত্যিই বিরল। আপাতত পাঁচ দিনের আইসোলেশনে যেতে হবে আর্চারকে। এবং এই সময়ের মধ্যে দু’বার তার কোভিড-১৯ পরীক্ষা করানো হবে। পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসার পরই সতীর্থদের সঙ্গে মেশার সুযোগ পাবেন তিনি।

‘বায়ো সিকিওর বাবল’ থেকে বেরানোটা যে বড়সড় ভুল, তা মেনে নিয়েছেন আর্চারও। তিনি ইসিবিকে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘যেটা করেছি, সেজন্য আমি খুবই দুঃখিত। শুধু নিজেকেই নয়, পুরো দল ও ম্যানেজমেন্টকে বিপদে ফেলে দিয়েছি আমি। নিজের কৃতকর্মের দায় স্বীকার করে নিচ্ছি। এবং সবার কাছে আন্তরিকভাবে দুঃখপ্রকাশ করছি।’ ইংল্যান্ডের পেসার বলেন, ‘খুবই খারাপ লাগছে যে এই ম্যাচটি আমি খেলতে পারছি না। বিশেষ করে সিরিজ যে অবস্থায় আছে। বুঝতে পারছি, দুই দলকেই হতাশ করেছি এবং তাই আবারও ক্ষমা চাইছি।’

খবর : সংবাদপ্রতিদিন’র।