নিজেদের বোর্ডকেই তোপ হোল্ডিংয়ের

0
196

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের বিরুদ্ধে টাকা নয়ছয় করার অভিযোগ আনলেন মাইকেল হোল্ডিং। কিংবদন্তি এই প্রাক্তন পেসার অভিযোগ করেছেন, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের তরফে পাঁচ লাখ মার্কিন ডলার (ভারতীয় মুদ্রায় তিন কোটি ৭৯ লাখ) অনুদান দেওয়া হয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডকে। সেই অর্থ কোথায় গেল, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন হোল্ডিং।
একটি ইউটিউব শোয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের অডিট রিপোর্ট তুলে ধরে হোল্ডিং নানা দুর্নীতির অভিযোগ এনেছেন। ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটের স্বর্ণযুগের এই পেসার বলেছেন, ‘২০১৩-’১৪ সালে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের তরফে পাঁচ লাখ ডলার অনুদান হিসেবে দেওয়া হয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডকে। যা বোর্ডের খরচ করার কথা ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রাক্তন ক্রিকেটারদের পিছনে। কিন্তু সেটা কি হয়েছে?’
এই প্রশ্নের জবাব হোল্ডিং নিজেই দিয়েছেন। তার কথায়, ‘আমি নিজে এক জন প্রাক্তন ক্রিকেটার। আমার কোনও কিছু চাই না। কিন্তু আমি অনেক প্রাক্তন ক্রিকেটারকে জানি, যারা ওই পাঁচ লাখ ডলারের থেকে একটা পয়সা পেয়েছে বলে শুনিনি। যদি প্রাক্তন ক্রিকেটারদের জন্য বোর্ড কিছু করত, তা হলে এত দিনে এই নিয়ে বিশাল হইচই ফেলে দিত ওরা।’ এর পরে হোল্ডিংয়ের প্রশ্ন, ‘ওই পাঁচ লাখ ডলার কোথায় গেল? অপেক্ষা করুন। দর্শকদের খুব তাড়াতাড়ি আমি সব জানাব।’
অডিট রিপোর্ট হাতে নিয়ে ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তির প্রশ্ন, ‘এই রিপোর্ট কেন প্রকাশ্যে আনা হয়নি?’ হোল্ডিং জানিয়েছেন, যত তিনি অডিট রিপোর্ট পড়ছেন, তত রেগে যাচ্ছেন। ‘ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের প্রেসিডেন্ট থেকে প্রধানমন্ত্রী— অনেকেই দাবি তুলেছেন স্বচ্ছ ভাবে যেন অডিট রিপোর্ট তৈরি হয়। কিন্তু সে সব কিছুই হয়নি।’
জীবাণু মুক্ত ক্রিকেট বল : করোনা অতিমারি পরবর্তী অধ্যায়ে ক্রিকেট শুরু হলে নতুন একটি ব্যাপার দেখা যেতে পারে। স্যানিটাইজারের মাধ্যমে ক্রিকেট বলকে জীবাণু মুক্ত করা। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া তেমনই ভাবছে। তাদের বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান অ্যালেক্স কনতৌরির মন্তব্য, ‘ক্রিকেট বলকে জীবাণু মুক্ত করার ব্যাপারটা অবশ্যই ভাবনায় আছে। তবে এই পদ্ধতি কতটা সফল হবে, তা এখনই বলতে পারছি না। কারণ, আমরা এখনও কোনও পরীক্ষা চালাইনি।’
খবর : আনন্দবাজার’র।