জ্ঞানার্জনে পাঠাগারের বিকল্প নেই : মেয়র

0
225
কেন্দ্রীয় দুর্যোগ নিয়ন্ত্রন কেন্দ্র ও পাঠাগার ভবন উদ্বোধন শেষে মুনাজাত করছেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন
কেন্দ্রীয় দুর্যোগ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র ও পাঠাগার ভবন উদ্বোধন

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, মানবতা, বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, ধর্ম, ইতিহাস, ঐতিহ্য অনুশীলন ও জ্ঞানার্জনের ক্ষেত্রে পাঠাগারের কোনো বিকল্প নেই। কলকাতার চট্টগ্রাম অ্যাসোসিয়েশন প্রতিষ্ঠিত এই পাঠাগারটি ১৯০৪ সালে উন্নত মানস গঠন চর্চায় চট্টগ্রামে এই লাইব্রেরিটি স্থানান্তর করে। লালদিঘীর পাড়ের এই লাইব্রেরিটি বিট্রিশ কাউন্সিলসহ অনেক পাঠাগার প্রতিষ্ঠানের জন্মস্থান। এই পাঠাগারে অনেক দুর্লভ গ্রন্থ, প্রামাণ্য দলিলসহ অনেক প্রকাশনাপত্র সংরক্ষিত আছে।

গতকাল সকালে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন পরিচালিত লালদিঘী কেন্দ্রীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা নিয়ন্ত্রণ দপ্তর, লাইব্রেরি কমিউনিটি সেন্টার কাম সাইক্লোন সেন্টারটি উদ্বোধনকালে মেয়র এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, এই শহরেই আমার বেড়ে উঠা। একসময় দেখেছি এই প্রতিষ্ঠানটির জৌলুষ। কিন্তু পরিচর্যার অভাবে ধীরে ধীরে প্রতিষ্ঠানটি অবহেলিত ও জরাজীর্ণ হয়ে পড়ে। এক সময় জ্ঞান অনুসন্ধানী নাগরিকরা এখানে ভিড় করতেন। তবে এর অবকাঠামোগত দুর্বলতার কারণে এখানে সংরক্ষিত বই-পত্রসহ অনেক মূল্যবান দালিলিক পান্ডুলিপি ও লেখাপত্র নষ্ট হয়ে গেছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলর জহর লাল হাজারী, সাইয়েদ গোলাম হায়দার মিন্টু, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর আঞ্জুমান আরা বেগম, চসিক প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল সোহেল আহমেদ, মেয়রের একান্ত সচিব মোহাম্মদ আবুল হাশেম, নির্বাহী প্রকৌশলী ফরহাদুল আলম, সহকারী প্রকৌশলী রিফাতুল করিম চৌধুরী, মিজবাহ-উল আলম, লাইব্রেরিয়ান এ আর ফারুকী, সহকারী লাইব্রেরিয়ান সৈয়দা পারভীন, বেলাল আহমেদ, এস এম মামুনুর রশীদ । উল্লেখ্য, সাতান্ন হাজার দুইশ বর্গফুটের ৭ তলা বিশিষ্ট এই ভবন নির্মাণের ব্যয় হয়েছে ১৪ কোটি ১৭ লক্ষ ৯১ হাজার টাকা ।   বিজ্ঞপ্তি