কাল থেকে সিটি হল আইসোলেশন সেন্টারে ভর্তি করা হবে রোগী

0
210

আগ্রাবাদ এক্সেস রোডে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের অর্থায়ন ও ব্যবস্থাপনায় করোনা আক্রান্তদের জন্য প্রতিষ্ঠিত ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট সিটি হল কোভিড আইসোলেশন সেন্টারে রোগী ভর্তির মাধ্যমে আগামীকাল ২১ জুন (রোববার) থেকে শুরু হচ্ছে।
সেন্টারে ডা. সুশান্ত বড়–য়াকে পরিচালকের দায়িত্ব দিয়ে চসিক স্বাস্থ্য বিভাগের ১৬ জন চিকিৎসক, নার্স, ওয়ার্ড বয়, ল্যাব টেকনোলজিস্ট, ফার্মাসিস্ট ও আয়াসহ ৬০ জন লোকবল নিয়োগ দেয়া হয়েছে। হাসপাতালটিতে বর্তমানে প্রাথমিকভাবে ৫০ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার ও উপকরণ সংযুক্ত করা হয়েছে। এ ছাড়াও হাইফ্লো ন্যাসাল ক্যানুলা সংগ্রহ করার পরিকল্পনাও রয়েছে।
চট্টগ্রামে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৬ হাজারের কাছাকাছি। এর বিপরীতে মহানগরীতে করোনা চিকিৎসা দেয়া হয় এমন ৮টি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে আইসোলেশন শয্যা আছে ৬৬৮টি। সংগত কারণেই আক্রান্তের তুলনায় চিকিৎসার সেবার পরিধি খুবই অপ্রতুল। এই প্রেক্ষিত বিবেচনায় সময় উপযোগী পদক্ষেপ হিসেবে কোভিড রোগীদের সেবা প্রাপ্তি সহজলভ্য করতে ও আইসোলেশন সংকট দূরীকরণে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন আইসোলেশন সেন্টার তৈরির উদ্যোগ নেন।
মেয়র বলেন, করোনাকালে অবনতিশীল পরিস্থিতির মোকাবেলায় সিটি হল কোভিড আইসোলেশন সেন্টারটি নগরবাসীর জন্য একটি আশাজাগানিয়া উদ্যোগ। সেন্টারটিতে নগরীর বাইরেরও করোনা আক্রান্ত রোগী ভর্তি হতে পারবে এবং নন-কোভিড রোগীরাও তাৎক্ষণিক সেবা নেয়ার পর তাদের রোগ অনুযায়ী বিশেষায়িত হাসপাতালে স্থান্তারিত করা হবে। সেন্টারে প্রথমত কোভিড-১৯ আক্রান্ত মৃদু ও মাঝারি পর্যায়ে রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেয়ার পর কোন রোগীর অবস্থা গুরুতর হলে তাকে নিজস্ব এ্যাম্বুলেন্স করে বিশেষায়িত হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হবে।
সেন্টার থেকে কোন রোগীই যাতে বিনা চিকিৎসায় ফিরে না যায়। এই কোভিড আইসোলেশন সেন্টারে আগত রোগীদের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করার জন্য ডাক্তার ও নার্সদের দায়িত্বের প্রতি সচেতন থাকার আহ্বান জানান মেয়র।