এবার ফিক্সিংয়ের দায়ে ৬ বছর নির্বাসিত আফগান ক্রিকেটার

0
222

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক

ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ ওঠায় বারবার কলঙ্কিত হয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট। এবার কালিমালিপ্ত আফগানিস্তান। গড়াপেটার অপরাধে ছ’বছরের জন্য সমস্ত ধরনের ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত করা হল আফগান ব্যাটসম্যান শফিকুল্লা শাফককে। রোববারই নিজেদের সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করে আফগান ক্রিকেট বোর্ড জানায়, ৩০ বছরের উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান একাধিকবার ম্যাচ গড়াপেটা করেছেন কিংবা গড়াপেটার চেষ্টা করেছেন। ২০১৮ সালে আফগানিস্তান প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টির উদ্বোধনী মরশুমে এবং পরের বছর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে ফিক্সিংয়ের সঙ্গে নাম জড়ায় শাফকের। বিজ্ঞপ্তিতে আফগান বোর্ড তাই জানায়, জেন্টলম্যান্স গেমকে কলঙ্কিত করেছেন তিনি। এমনকি ঘরোয়া ক্রিকেটকেও প্রভাবিত করা চেষ্টা করেছেন। দুর্নীতিদমন আইন ভঙ্গ করার শাস্তিস্বরূপই তাকে নির্বাসিত করা হল।

গড়াপেটায় জড়িয়ে এর আগে বিশ্বখ্যাত একাধিক ক্রিকেটারের কেরিয়ার নষ্ট হয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকার প্রয়াত তারকা হ্যান্সি ক্রোনিয়ে থেকে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক মহম্মদ আজহারউদ্দিন, পাক তারকা সেলিম মালিককে আজীবন নির্বাসনে পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু ২০০৯ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখার পর থেকে এতদিন আগফানিস্তানের ক্রিকেটে গড়াপেটার কালো দাগ লাগেনি। এবার শাফকের জন্য মাথা হেঁট হল সে দেশের বোর্ডের। এসিবির দুর্নীতিদমন শাখার ম্যানেজার সৈয়দ আনওয়ার শাহ কুরেশি বলেন, ‘এটা অত্যন্ত ঘৃণ্য অপরাধ। জাতীয় দলের একজন ক্রিকেটার ঘরোয়া ক্রিকেটে দুর্নীতির প্রবেশ করিয়েছেন। শুধু তাই নয়, ২০১৯ বিপিএলে এই গড়াপেটার কাজে এক সতীর্থকেও সঙ্গী করতে চেয়েছিলেন শাফক।’

তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ স্বীকার করেছেন দেশের হয়ে ৪৬টি টি-টোয়েন্টি খেলা তারকা শাফক। সেই সঙ্গে উঠতি ক্রিকেটাররা যাতে তার মতো অপরাধে না জড়ান, সেই সংক্রান্ত প্রশিক্ষণের সঙ্গেও যুক্ত হতে রাজি হয়েছেন তিনি। এমনটাই জানিয়েছে এসিবি।

খবর সংবাদপ্রতিদিন’র।