উন্নয়নের জন্য চট্টগ্রামের নেতাদের তৈরি হতে হবে

0
172

ওয়াসার অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

৫ বছরের জন্য দিকনির্দেশনা তৈরি করতে বললেন মেয়রকে

নিজস্ব প্রতিবেদক :
উন্নয়নের জন্য চট্টগ্রামের নেতাদের তৈরি হতে বললেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী এম তাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, আমি চট্টগ্রামের জন্য আন্তরিক। আমি চট্টগ্রামকে ভালবাসি। প্রধানমন্ত্রীও চান সারাদেশের সাথে চট্টগ্রামের উন্নয়ন হউক। চট্টগ্রামের কোনো প্রকল্প গেলে তিনি তা অনুমোদন করে দেন। কিন্তু প্রকল্প ছাড়া প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন, প্রভিডেন্ট ফান্ড প্রদানের জন্য তো সরকার টাকা দিতে পারে না। তাই প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করতে হবে। আর তা করতে গিয়ে চট্টগ্রামের নেতাদের তৈরি হতে হবে এবং তাদের সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।’
গতকাল পাঁচতারকা হোটেল র‌্যাডিসন ব্লু বে ভিউতে চট্টগ্রাম ওয়াসার ‘পতেঙ্গা বুস্টার স্টেশন’ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
চট্টগ্রাম ওয়াসা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, সিলেটে ১২০০ কোটি টাকার একটি প্রকল্পের অনুমোদন পেতে সেখানকার রাজনৈতিক নেতাদের যে আন্তরিকতা দেখা গেল তা অভাবনীয়। আর অনুমোদন দেয়ার পর ৩০০ কোটি টাকা পেয়ে যেভাবে কাজ এগিয়ে নিয়েছে এতে পরবর্তীতে আরো অনেক প্রকল্পের অনুমোদন তাদের দেয়া হয়েছে। চট্টগ্রামে প্রধানমন্ত্রী নিজে সাড়ে চার হাজার কোটি টাকার জলাবদ্ধতা প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছেন। এখন যদি প্রকল্প বাস্তবায়ন না করা হয় তাহলে অনুমোদন কিভাবে দেয়া হবে?
তিনি সিটি করপোরেশনের মেয়র রেজাউল করিমকে উদ্দেশ করে বলেন, আপনি প্রকল্প গ্রহণ করুন এবং চট্টগ্রামের নেতাদের নিয়ে অগ্রসর হোন। আগামী পাঁচ বছরের জন্য কিভাবে নগরকে এগিয়ে নিতে চান তার একটি দিক নির্দেশনা তৈরি করেন। চট্টগ্রামের উন্নয়নের জন্য আমি আন্তরিক। কিন্তু আমার এই আন্তরিকতাকে কাজে লাগাতে হবে।
প্রকল্প প্রসঙ্গে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী আরো বলেন, বিশ্বে স্থানীয় সরকার শক্তিশালী হচ্ছে। আমাদেরও সক্ষমতা অর্জন করতে হবে। জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে নিয়ে প্রকল্প নেয়া এবং তা বাস্তবায়নে এগিয়ে যেতে হবে। আয়বর্ধক প্রকল্প নিতে হবে এবং তা পরিচালনায় দক্ষতাও অর্জন করতে হবে। একইসাথে প্রতিষ্ঠানের রাজস্বও বাড়াতে হবে।
মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, শুধু একজন মেয়র নির্বাচিত করে সব বোঝা তার উপর চাপিয়ে দিলে হবে না। আর তা করতে সকলের সহযোগিতা লাগবে। একইসাথে মেয়রকেও সবাইকে নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। সকলের সম্পৃক্ততার মাধ্যমে এগিয়ে গেলে সফলতা আসবে।
তিনি চট্টগ্রামের নেতাদের উদ্দেশে প্রশ্ন করে বলেন, চট্টগ্রামের নদী দখল করে বিভিন্ন শিল্প কারখানা স্থাপনের জন্য লিজ দেয়া হয়। তখন আপনারা কোনো আওয়াজ করেন না কেন? তৃনমূল থেকে জনপ্রতিনিধিদের আওয়াজ তুলতে হবে। একইভাবে চট্টগ্রামের উন্নয়নের জন্যও সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সিটি করপোরেশনের মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, চট্টগ্রামের উন্নয়নে মন্ত্রণালয়ের নজর রয়েছে। তাই সবার পরামর্শ নিয়ে সম্মিলিত প্রয়াসের মাধ্যমে চট্টগ্রামকে আদর্শ ও মানবিক শহর হিসেবে গড়ে তুলবো।
এতে বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য ও হুইপ সামসুল আলম, সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দীন আহমদ, সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম, মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী হাসিনা মহিউদ্দিন, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দিন আহমেদ। এছাড়া স্বাগত বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল্লাহ। তিনি চট্টগ্রাম ওয়াসার চলমান প্রকল্পগুলোর চিত্র উপস্থাপন করেন। আগামী মাসে ওয়াসার পানি উৎপাদন দিনে ৫০ কোটি লিটারে উন্নীত হবে বলেও জানান। কর্ণফুলী পানি সরবরাহ প্রকল্প-২ চালু হলে নগরবাসী দিনে আরো ১৪ কোটি লিটার পানি পাবে। আর এ উদ্বোধন হওয়া বুস্টার স্টেশনের মাধ্যমে পতেঙ্গা ও ইপিজেড এলাকায় সুপেয় পানি সরবরাহ করা যাবে।