আবাহনী-শেখ জামাল রোমাঞ্চকর ড্র

0
43

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
দুইবার এগিয়ে গেল আবাহনী লিমিটেড। প্রতিবার দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়াল শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব। প্রিমিয়ার লিগের দুই সাবেক চ্যাম্পিয়নের ম্যাচটি হয়েছে রোমাঞ্চকর ড্র।
বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে গতকাল মঙ্গলবার ২-২ ড্র হয় ম্যাচটি। চলতি লিগে এই প্রথম পয়েন্ট হারানো শেখ জামাল ছয় ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে। এক ম্যাচ বেশি খেলা আবাহনী ১৫ পয়েন্ট নিয়ে আছে তৃতীয় স্থানে। খবর বিডিনিউজের।
শুরু থেকে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে জমে ওঠে ম্যাচ। ত্রয়োদশ মিনিটে এগিয়ে যায় আগের ছয় লিগ ম্যাচ অপরাজিত থাকা আবাহনী। রায়হান হাসানের লম্বা থ্রো ইনের পর ডি-বক্সের বাইরে বল পেয়ে যান সোহেল রানা। এই মিডফিল্ডারের সাইড ভলি বেরিয়ে যেত বাইরে দিয়ে, কিন্তু হাইতির ফরোয়ার্ড কেরভেন্স ফিলস বেলফোর্ট পা ছোঁয়ালে বল দিক পাল্টে জালে জড়ায়।
টানা পাঁচ জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে নামা শেখ জামালের শিবিরে সমতার স্বস্তি ফিরে ১৯তম মিনিটে। উজবেকিস্তানের মিডফিল্ডার ভালিজনোভ ওতাবেকের পাস ধরে গাম্বিয়ান ফরোয়ার্ড সুলাইমান সিল্লাহর নিখুঁত শট গোলরক্ষক শহিদুল ইসলাম সোহেলের পাশ দিয়ে ঠিকানা খুঁজে নেয়।
তিন মিনিট পর ফের এগিয়ে যেতে পারত প্রিমিয়ার লিগের ষষ্ঠবারের চ্যাম্পিয়ন আবাহনী। কিন্তু রাফায়েল অগাস্তো সান্তোস দি সিলভার থ্রু পাস ধরে বেলফোর্ট শট নেন গোলরক্ষক জিয়াউর রহমান জিয়া বরাবর।
৩৭তম মিনিটে বলের দখল নেওয়ার লড়াইয়ে রায়হান পড়ে গেলে শেখ জামালের সলোমন কিং ইচ্ছাকৃতভাবে তার গায়ে বল মেরে বসেন। উত্তেজনা তৈরি হয়। শুরু হয় দুই পক্ষের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি। এক পর্যায়ে জুয়েল রানাকেও ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন সলোমন। রেফারি সলোমন, জুয়েল দুজনকেই দেন লাল কার্ড।
দ্বিতীয়ার্ধের শুরুর আক্রমণ থেকে গোল তুলে নেয় ২০১৭-১৮ মৌসুমে সবশেষ লিগ জেতা আবাহনী। বাঁ দিক থেকে রায়হানের আড়াআড়ি ক্রসে ডাইভিং হেডে জিয়াকে পরাস্ত করেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ফ্রান্সিসকো রদ্রিগেজ দি সৌজা ফিলহো।
বাঁ দিক দিয়ে বারবার আক্রমণে উঠলেও পরপর দুটি সমতা ফেরানোর সুযোগ নষ্ট করেন ওমর জোবে। ৫০তম মিনিটে ছোট ডি-বক্সের বাঁ দিক থেকে ক্রসবারের ওপর দিয়ে উড়িয়ে মারেন। দুই মিনিট পর একই অবস্থান থেকে তার শট বেরিয়ে যায় দূরের পোস্ট দিয়ে।
৭১তম মিনিটে সমতায় ফেরে ২০১৪-১৫ মৌসুমে সবশেষ লিগ জেতা শেখ জামাল। মাসিহ সাইঘানি পারেননি সিল্লাহকে আটকাতে; গাম্বিয়ান ফরোয়ার্ডের পাস ধরে নিখুঁত শটে শহিদুলকে পরাস্ত করেন জোবে। দুই মিনিট পর জোবের শট ফিস্ট করে ক্রসবারের ওপর দিয়ে বের করে আবাহনীর ত্রাতা গোলরক্ষক।
দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ে আবাহনীর ডিফেন্ডার নাসির উদ্দিন চৌধুরি হেডে জাল খুঁজে নিলেও অফসাইডের কারণে গোল হয়নি। ড্রয়ে নিষ্পত্তি হয় ম্যাচ।
দিনের অন্য ম্যাচে কুমিল্লার শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ পুলিশ এফসিকে ১-০ গোলে হারায় মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব।