অস্ট্রেলিয়ান ওপেন শুরু ৮ ফেব্রুয়ারি

0
100

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
করোনা ভাইরাসের কারণে এনিয়ে দ্বিতীয় বছরের মত গ্র্যান্ড স্ল্যাম টুর্নামেন্টের ক্যালেন্ডারে পরিবর্তন আসলো। এক সপ্তাহব্যাপী আলোচনার পর আয়োজক সংস্থা থেকে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে আগামী বছর ৮ ফেব্রুয়ারি শুরু হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন টেনিস।
বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্লামকে সামনে রেখে পুরুষ বিভাগের বাছাইপর্বের ম্যাচগুলো দোহায় অনুষ্ঠিত হবে। তবে তার আগে বেশ কয়েকটি প্রস্তুতিমূলক টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে অন্যতম হলো এটিপি কাপ ।
করোনার কারণে এ বছর উইম্বলডন বাতিল করা হয়েছিল। ফেঞ্চ ওপেন পিছিয়ে সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত হয়। দর্শকশুন্য স্টেডিয়ামে আয়োজিত হয় ইউএস ওপেন। এবার তিন সপ্তাহ পিছিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।
অস্ট্রেলিয়ায় যেহেতু করোনাভাইরাস প্রায় নিয়ন্ত্রনে সে কারণে মেলবোর্ন পার্কে অবশ্য দর্শকের উপস্থিতির বিষয়টি মোটামুটি নিশ্চিতই বলা যায়। যদিও খেলোয়াড়দের বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। টেনিস অস্ট্রেলিয়া ও মেলবোর্নের স্থানীয় কর্মকর্তাদের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনার পর নতুন তারিখ হিসেবে ৮-২১ ফেব্রুয়ারি নির্ধারণ করা হয়েছে। দ্বিতীয় দফায় পুরো অক্টোবর জুড়েই মেলবোর্নে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল।
সাধারণত ১৮ জানুয়ারি থেকে বছরের প্রথম এই গ্র্যান্ড স্লাম শুরু হয়ে থাকে। এখন খেলোয়াড়দের ১৫ জানুয়ারি থেকে অস্ট্রেলিয়ায় প্রবেশের অনুমতি মিলেছে। বেশীরভাগ খেলোয়াড় যেহেতু এমন দেশ থেকে আসবে যেখানে এখনো করোনার ভয়াবহতা চলছে, সে কারণেই কোয়ারেন্টাইনের গাইডলাইন কঠোর করতে বাধ্য হয়েছে অস্ট্রেলিয় সরকার।
এর আগে গণমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছিল খেলোয়াড়দেও নির্দিষ্ট কিছু হোটেলেই অবস্থান করতে পারবে এবং তাদের অনুশীলনের অনুমতি ছিল। দিনে পাঁচ ঘণ্টা তারা অনুশীলনে ব্যয় করতে পারবে। যদিও এনিয়ে টেনিস অস্ট্রেলিয়া থেকে সুনির্দিষ্ট করে কিছু জানানো হয়নি।
এদিকে এটিপি জানিয়েছে পুরুষদের বাছাইপর্ব ১০-১৩ জানুয়ারি দোহায় অনুষ্ঠিত হবে। যদিও নারীদের বাছাইপর্বের ব্যপারে এখনো কিছু জানানো হয়নি। এছাড়া প্রথমবারের মত আয়োজিত ১২ দলের এটিপি কাপ এখন এডিলেড ইন্টারন্যাশনাল নামে অনুষ্ঠিত হবে।
অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে বিশ্বের এক নম্বর খেলোয়াড় নোভাক জকোভিচের অংশগ্রহণ প্রায় নিশ্চিত হলেও ৩৯ বছর বয়সী সুইস তারকা রজার ফেদেরারের খেলা নিয়ে শঙ্কা রয়েছে। হাঁটুর অস্ত্রোপচার শেষে এখনো বিশ্রামে রয়েছেন ফেদেরার। ক্যারিয়ারের নবম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে কোর্টে নামবেন জকোভিচ।
গত বছর ফাইনালে তিন সেটের লড়াইয়ে স্প্যানিয়ার্ড গারবিন মুগুরুজাকে হারিয়ে ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মত গ্র্যান্ড স্লাম শিরোপা জেতা মার্কিন তরুনি সোফিয়া কেনিন শিরোপা ধরে রাখার মিশনে কোর্টে নামবেন।
অস্ট্রেলিয়ান ওপেন বস ক্রেইগ টিলে আশা করছেন মেলবোর্ন পার্কের ধারনক্ষমতার ২৫-৫০ শতাংশ দর্শক স্টেডিয়ামে প্রবেশের অনুমতি পাবেন। খবর : ডেইলিবাংলাদেশ’র।