বৃদ্ধ পিতাকে পিটিয়ে ঘরে আটকে রাখল ২০ ঘণ্টা

0
126

খাটে ছেলের কাণ্ড

নিজস্ব প্রতিনিধি, সাতকানিয়া
সাতকানিয়ায় নুরুল হক (৭০) নামে এক বৃদ্ধকে রড দিয়ে পিটিয়ে ঘরে আটক করে রাখে তারই বখাটে ছেলে। শুধু তাই নয় রক্তাক্ত আহত পিতাকে কেউ যেন কোন ধরনের সহযোগিতা না করে সেজন্য স্থানীয়দের হুমকিও দেয় বখাটে ছেলে মো. ফরিদ। আহত পিতাকে ঘরে আটকে রেখে স্থানীয়দের শাসিয়ে ছেলে বাইরে চলে যাওয়ার পর লোকজন এসে তাকে মুক্ত করে এবং চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যায়।
উপজেলার কেঁওচিয়া ইউনিয়নের তেমুহনী এলাকায় গত বৃহস্পতিবার নিজ সন্তদানের হাতে প্রহৃত এবং গৃহবন্দি পিতা গত শুক্রবার দুপুরে টানা ২০ ঘন্টা পর বন্দিদশা থেকে স্থানীয়দের সহযোগিতায় মুক্তি পেয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।
এলাকাবাসী জানান, কেঁওচিয়া ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মো. নুরুল হককে তার বখাটে পুত্র মো. ফরিদ গত বৃহস্পতিবার বিকালে রড দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে রক্তাক্ত করে। এরপর ঘরের একটি কক্ষে আটক করে রাখে। এ সময় পিতাকে এক গ্লাস পানিও খেতে দেয়নি। রডের আঘাতের ব্যাথায় কাতরানো বাবার আকুতি ছেলের মন গলাতে পারেনি। এ ঘটনার পর বিনা চিকিৎসায় ও অনাহারে থাকতে হয়েছে দীর্ঘ ২০ ঘণ্টা। পরে ছেলের অনুপস্থিতিতে লোকজন বাড়ি থেকে উদ্ধার করে বৃদ্ধ নুরুল হককে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যায়।
আহত বৃদ্ধ মো. নুরুল হক জানান, ছেলে ফরিদ কখনো তাকে ভরণ-পোষণ দেয়নি। অপরদিকে তার চাচী খালেদা বেগমের প্ররোচনায় দীর্ঘদিন যাবৎ আমার উপর নির্যাতন চালিয়ে আসছে। জুয়া খেলে ও নেশা করে ঘরে ফিরে বহুবার আমাকে মারধর করেছে। কিছুদিন যাবৎ আমার বসত ভিটে বিক্রি করে টাকার দেয়ার জন্য আমাকে চাপ দিতে থাকে। আমি বাপ-দাদার রেখে যাওয়া ভিটে বিক্রি করতে অস্বীকৃতি জানালে ছেলে ফরিদ আমাকে মারধর করে ও নানা হুমকি দেয়। ঘটনার দিন ফরিদ পুনরায় আমাকে গালিগালাজ করে এবং জায়গা বিক্রি করে টাকা দিতে চাপ সৃষ্টি করে। তার এ কাজে আমি প্রতিবাদ করলে আমাকে কিল, ঘুষি ও লাথি মারতে শুরু করে। এক পর্যায়ে রড দিয়ে আমার মাথায় আঘাত করার সময় চোখের পাশে আঘাত লাগে। সহ্য করতে না পেরে আমি মাটিতে লুঠিয়ে পড়লে আমাকে পুনরায় লাথি দিয়ে টানা হেঁচড়া করতে থাকে। পরবর্তীতে রক্তাক্ত অবস্থায় আমাকে ঘরে আটকে রেখে বাইরে চলে যায়।
সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আনোয়ার হোসেন জানান, এ ঘটনায় আহত বাবা মো. নুরুল হক বাদি হয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে পুলিশ ঘটনায় জড়িত বখাটে ছেলেকে গ্রেফতারের চেষ্টা চালাচ্ছে।