মৎস্যজীবীদের মাঝে চাল বিতরণ চসিক প্রশাসকের : সমস্যা-অভিযোগ তুলে ধরার আহ্বান

0
36

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন বলেছেন, ‘খাদ্যবান্ধব’ কর্মসূচির আওতায় দেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে চাল বিতরণ কর্মসূচি চালু করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাঁর ভিশন অনুযায়ী বাংলাদেশে কোনো মানুষ দরিদ্র থাকবেনা, বাংলাদেশ হবে উন্নত-সমৃদ্ধ। সে লক্ষ্যেই আমরা কাজ করে যাচ্ছি। তিনি বলেন, ‘খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিতে একটা মানুষও না খেয়ে থাকবে না, একটা মানুষ গৃহহীন থাকবে না’।
গতকাল বিকেলে নগরীর আনন্দবাজারে অসহায় ২৮৪ জন মৎস্যজীবী পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত চাল বিতরণকালে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, ‘আমরা রাজনীতি করি কাদের জন্য? আপনাদের জন্য। আপনাদের অভুক্ত রেখে রাজনীতি মানায় না। বৈরি আবহাওয়া ও সাগর উত্তাল থাকলে নগরীতে প্রান্তিক জনগোষ্ঠী বিশেষ করে মৎস্যজীবীদের মাছ ধরা বন্ধ থাকার কারণে খাদ্যাভাবে পড়তে হয়। তাদের দুঃখ দুর্দশা লাঘবে সরকারের এই মানবিক উদ্যোগ আমরা বাস্তবায়ন করছি।’
প্রশাসক মৎস্যজীবীদের যে কোন প্রয়োজন বা অভিযোগ তাঁর কাছে তুলে ধরার আহ্বান জনান।
এ সময় প্রশাসকের একান্ত সচিব মোহাম্মদ আবুল হামেম, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের শ্রম সম্পাদক আবদুল আহাদ, বন্দর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইলিয়াছ, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মান্নান, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক হাবিব শরীফ, মোহাম্মদ ইসহাক চৌধুরী, মৎস্যজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হিরেন্দ্র জলদাশ উপস্থিত ছিলেন।
এছাড়া জামেয়া আহমদীয়া সুন্নীয়া মাদ্রাসায় ১৪৮ প্যাকেট, কদম মোবারক মুসলিম এতিম খানায় ১৫২ প্যাকেট, দারুল মারুফ মাদ্রাসায় ১৫০ প্যাকেট ও কৈবল্যধাম আশ্রমে ১৫০ প্যাকেট চাল প্রদান করা হয়। বিজ্ঞপ্তি