ব্রডের তোপে বিধ্বস্ত উইন্ডিজরা

0
105
ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ৬ উইকট নেয়ার পর বল উঁচিয়ে মাঠ ছাড়ছেন স্টুয়ার্ট ব্রড- ক্রিকইনফো

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে তৃতীয় টেস্টের দ্বিতীয়দিনের শুরুটা ভালোই হয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের। প্রথমদিন পোপ-বাটলারের ১৩৬ রানের অবিভক্ত পার্টনারশিপ এদিন বিশেষ লম্বা হয়নি। গতকালের পর এদিন ব্যক্তিগত স্কোরের খাতায় কোনও রান যোগ না করেই গ্যাব্রিয়েলের ডেলিভারিতে ক্লিন বোল্ড হয়ে ফেরেন পোপ। ৪ উইকেটে ২৫২ রানে খেলা শুরু করে একসময় ২৮০ রানে ৮ উইকেট খুঁইয়ে বসে ইংরেজরা। ইংল্যান্ডের রান যখন তিনশোর গন্ডি ছোঁয়া নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে তখন উইন্ডিজ বোলারদের সামনে ব্যাট হাতে ঢাল হয়ে দাঁড়ান স্টুয়ার্ট ব্রড। তার ৪৫ বলে মারকাটারি ৬২ রানের ইনিংস ফের ব্যাকফুটে ঠেলে দেয় ক্যারিবিয়ানদের।
ইংল্যান্ড ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে তৃতীয় দ্রুততম অর্ধ-শতরান করেন ব্রড। ৯টি চার ও ১টি ছয়ে সাজানো তার ৬২ রানের ইনিংসেই সাড়ে তিনশো রানের গন্ডি পেরোয় থ্রি-লায়ন্সরা। ৩৬৯ রানে শেষ হয় ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংস। ক্রিস ওকসকে সাজঘরে ফিরিয়ে কার্টলে অ্যামব্রোসের ২৬ বছর পর উইন্ডিজ বোলার হিসেবে পাঁচদিনের ক্রিকেটে এদিন ২০০ উইকেটের মাইলস্টোন স্পর্শ করেন কেমার রোচ।
বাগে পেয়ে ইংল্যান্ডকে স্বল্প রানের মধ্যে বেঁধে রাখতে ব্যর্থ হলেও ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যানরা চাইলে ম্যাচের রাশ নিজেদের দখলে রাখতে পারতেন। কিন্তু ৩৬৯ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ধস নামল ওয়েস্ট ইন্ডিজ শিবিরে। চা-বিরতিতে দুই ওপেনার ক্রেগ ব্রাথওয়েট, জন ক্যাম্পবেল এবং শাই হোপের উইকেট খুঁইয়ে বসে তারা। ৩ উইকেট খুঁইয়ে ৫৯ রান তুলে চা-বিরতিতে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
দিনের অন্তিম সেশনেও দাপট বজায় থাকে ইংরেজ পেসারদের। কোনও ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যানকেই ক্রিজে থিতু হওয়ার বিশেষ সুযোগ দেননি ব্রড-অ্যান্ডারসনরা। তৃতীয় সেশনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের আরও তিন উইকেট তুলে নেয় ইংল্যান্ড। পরিবর্তে ৪৯ রান তোলেন ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যানরা।
যা অবস্থা তাতে দ্বিতীয় টেস্টের মতোই সফরকারী শিবিরে ফের একবার ফলো-অনের আতঙ্ক গ্রাস করেছে। দিনের শেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজের রান ৬ উইকেট হারিয়ে ১৩৭। এখনও ২৩২ রানে পিছিয়ে তারা। ফলো-অন বাঁচাতে প্রয়োজন ৩৩ রান। উইন্ডিজের হয়ে প্রথম ইনিংসে এখনও সর্বাধিক রান এসেছে ওপেনার ক্যাম্পবেলের (৩২) ব্যাট থেকে।
ক্রিজে ২৪ অপরাজিত রয়েছেন অধিনায়ক হোল্ডার, সঙ্গী ডাউরিচ অপরাজিত ১০ রানে। ২টি করে উইকেট পেয়েছেন অ্যান্ডারসন এবং ব্রড। একটি করে উইকেট ভাগ করে নিয়েছেন ওকস এবং আর্চার।
খবর : কলকাতাটোয়েন্টিফোর’র।