পরপর তিন বছর হবে তিনটি বিশ্বকাপ

0
112

 

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :

শেষ পর্যন্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এ বছরের মতো স্থগিতই করে দিতে বাধ্য হলো আইসিসি। এর আগে একাধিক বৈঠক করেও সিদ্ধান্ত নিতে গড়িমসি করছিল বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা। তবে সোমবার আইসিসি জানিয়েছে যে, এই বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে না।

ঠিক ছিল পরপর দুই বছরে দুটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে। এবার অস্ট্রেলিয়ায়, ২০২১ সালে ভারতে। আবার ২০২৩ সালে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ হওয়ার কথা ভারতে। এই বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত হওয়ায় পরপর তিন বছরে তিনটি বিশ্বকাপ দেখতে চলেছে ক্রিকেটপ্রেমীরা। তবে, দুইটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কোনটা কারা করবে, সেই সিদ্ধান্ত এখনো চূড়ান্ত করা হয়নি।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড চায়, ২০২১ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হোক ভারতে। ২০২২ সালে হোক অস্ট্রেলিয়ায়। আবার অস্ট্রেলিয়াও আবেদন করেছে, সামনের বছরের বিশ্বকাপ হোক তাদের দেশে, পরেরটা করুক ভারত। এ নিয়ে আরও এক রাউন্ড লড়াই সৌরভদের চালিয়ে যেতে হবে। তারা চান না, পরপর দু’বছর দুটি বিশ্বকাপ হোক ভারতে। তাহলে বাণিজ্য মহলের আগ্রহে টান পড়তে পারে। জানা গিয়েছে, নতুন আইসিসি প্রধান এবং তার অধীনে নতুন কমিটি এসে এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে।

সামনের বছরের ফেব্রুয়ারিতে মেয়েদের বিশ্বকাপ রয়েছে নিউজিল্যান্ডে। তা এখনও স্থগিত করা হয়নি। ২০২৩ সালে ভারতে অনুষ্ঠেয় পঞ্চাশ ওভারের বিশ্বকাপ বছরের শুরুর দিক থেকে শেষে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ২০১১ সালে শেষবার ভারতের মাটিতে বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির ভারত।

ক্রিকেটপ্রেমীদের জন্য সুখবর হচ্ছে, আইসিসি নিশ্চিত করে দিয়েছে, ২০২১ এবং ২০২২ সালে অক্টোবর-নভেম্বরে পরপর দুবছর দুটি ২০ ওভারের বিশ্বকাপ হবে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ১৬টি দল খেলবে। এক-একটি দলে ১৬ জন করে ক্রিকেটার এবং আরও অন্তত ১০ জন করে কোচ-সহকারী কোচেরা থাকবেন। তার মানে ১৬টি দল মিলিয়ে কমপক্ষে ৪১৬ জনের উপস্থিতি। এখনও আন্তর্জাতিক ভ্রমণের দরজা খোলেনি অনেক দেশে। অক্টোবরে খুলবে, এমন নিশ্চয়তা নেই। তার মধ্যে এত লোকের আগমন, দেড় মাস ধরে তাদের রাখা এবং সংক্রমণ না ছড়ানো নিশ্চিত করা চাট্টিখানি কথা নয়। যে কারণেই বিশ্বকাপ স্থগিত করতে বাধ্য হয়েছে আইসিসি।

খবর : ঢাকাটাইমস’র।