যুক্তরাষ্ট্রে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৬৫ হাজারের বেশি আক্রান্ত

0
89
হাসপাতালে কাজ করছেন চিকিৎসকরা

সুপ্রভাত ডেস্ক :

যুক্তরাষ্ট্রে বৃহস্পতিবার মহামারি করোনা ভাইরাসে নতুন করে আরো ৬৫ হাজার ৫৫১ জন আক্রান্ত হয়েছে। দেশটিতে ২৪ ঘণ্টায় কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যার এটি একটি নতুন রেকর্ড। জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ পরিসংখ্যান থেকে এ তথ্য জানা যায়। খবর এএফপি’র।
এ মহামারি ভাইরাসে বিশ্বে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্রে এনিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ১০ হাজার ছাড়ালো এবং দেশটিতে এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১ লাখ ৩৩ হাজার ১৯৫ জনে দাঁড়িয়েছে।
এরআগে গত মঙ্গলবার প্রাত্যহিক আক্রান্তের নতুন রেকর্ড হয়েছিল। সেদিন ২৪ ঘণ্টার হিসাবে ৬০ হাজার ২শ’র বেশি মানুষ করোনায় হয়।
সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে যুক্তরাষ্ট্রে, বিশেষকরে দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চলে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বেড়ে যেতে দেখা যাচ্ছে। এতে মৃত্যু হার খুব শিগগিরই আগের পথ অনুসরণ করতে পারে বলে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা ধারণা করছেন।
এদিকে, কোভিড-১৯ ভাইরাসে মৃতের ও আক্রান্তের সংখ্যা আবার অনেক বেড়ে যাওয়ার কারণে এ দুই অঞ্চলের রাজ্যগুলোতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ফের খুলে দেয়ার প্রক্রিয়া থেমে গেছে।
স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ৮ পর্যন্ত (গ্রিনিচ মান সময় শুক্রবার ০০৩০ টা) বাল্টিমোর ভিত্তিক ওই ইউনিভার্সিটির পরিসংখ্যান অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড-১৯ ভাইরাসে নতুন করে আরো ১ হাজার জন প্রাণ হারিয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান সংক্রমণ রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউচি বৃহস্পতিবার নিউজ আউলেট হিল আয়োজিত এক টেলিকনফারেন্স চলাকালে বলেন, ‘আমরা অত্যান্ত জটিল পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছি।’
ফাউচি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতির চাকা সচল করতে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ফের খুলে দেয়ার পর দেশটির বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বেড়ে গেছে।
এদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ফাউচি এমন মন্তব্যের ব্যাপারে সরাসরি দ্বিমত পোষণ করে বলেছেন, করোনা ভাইরাস পরীক্ষা কর্মসূচি অনেক জোরদার করার কারণে আক্রান্তের এ সংখ্যা বেড়ে গেছে। তিনি বলেন, তাই, এ বৃদ্ধি তেমন গুরুত্বপূর্ণ না।
ট্রাম্প বলেন, ‘আমরা ৪ কোটি মানুষের করোনাভাইরাস পরীক্ষা করেছি। এক্ষেত্রে যদি আমরা ২ কোটি লোকের করোনা পরীক্ষা করতাম, তাহলে আক্রান্তের সংখ্যা অর্ধেক হতো।’